বাইকের মতো দেখতে স্কুটার আনছে হোন্ডা

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ বাইকের জগতে হোন্ডা একটি প্রতিষ্ঠিত নাম। হোন্ডার নতুন কিছু এলো মানেই তার সঙ্গে জুড়ে থাকবে অসংখ্য নতুনত্ব। মাত্র কয়েকদিন আগেই ইন্দোনেশিয়ার বাজারে ভ্যারিও ১৬০ স্পোর্টস স্কুটার নিয়ে এসেছিল হোন্ডা। তবে এবার সেই ভ্যারিও ১৬০ স্পোর্টস স্কুটারের দুর্দান্ত লুকের একটি মোটোজিপি এডিশন প্রকাশ্যে নিয়ে এলো এই অটোমেকার।যদিও ভ্যারিও ১৬০ মোটোজিপি এডিশন আপাতত বিক্রয়ের জন্য উপলব্ধ হচ্ছে না বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ভ্যারিও ১৬০ মোটোজিপি এডিশনের মোট চারটি ইউনিট প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছে হোন্ডা। তাদের মধ্যে দুটির মডেল নম্বর হলো ৯৩ এবং ৪৪। এর সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয় হচ্ছে স্কুটার হলেও দেখতে হবে বাইকের মতোই।
    হোন্ডা ভ্যারিও ১৬০ মোটোজিপি এডিশনের ফিচার্স ও স্পেসিফিকেশনস স্ট্যান্ডার্ড কিন্তু ভ্যারিও ১৬০-এর মতো হুবহু এক।স্কুটারটির মডেল দুটি নির্দিষ্ট করে ব্যবহার করবেন মার্ক মারকিউজ এবং পল এসপারগারো। তারা হচ্ছেন ওই দলের দুই অফিসিয়াল রাইডার। বাকি দুটি ইউনিট ব্যবহার করবেন প্যাড্ডক ক্রিউ। প্রি-সিজন টেস্টেই এই স্কুটারগুলো ব্যবহার করবে হোন্ডা। তারপরে মান্দালিকায় আসল রেসিংয়ের অনুষ্ঠানটি হবে।
    ভ্যারিও ১৬০ মডেলটিতে একটি মাসকিউলার ফ্রন্ট অ্যাপ্রন এবং স্কুটারের চতুর্দিকে অ্যাঙ্গুলার ও শার্প ডিজাইন দেওয়া হয়েছে। এদিকে কমলা এবং লাল রঙের মোটোজিপি ইউনিট দুটি একটা ভিন্ন স্তরে গিয়ে নিজেদের ভিজুয়াল অ্যাপিল যেন আরও বাড়িয়ে তুলেছে। তবে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না, যদি এই ভ্যারিও ১৬০ মডেলের একটি মোটোজিপি এডিশন হোন্ডা নিয়ে আসে।
    এই ভ্যারিও ১৬০ স্কুটারে দেওয়া হয়েছে ১৪ ইঞ্চির অ্যালয় হুইল। থাকছে ১৬০সিসির সিঙ্গেল সিলিন্ডার, লিকুইড কুলড ইঞ্জিন, যা সর্বোচ্চ ১৫বিএইচপি পাওয়ার এবং ১৩.৪এনএম পিক টর্ক দিতে সক্ষম। বেশ কিছু প্র্যাক্টিক্যাল ফিচার্সও রয়েছে এই স্কুটারে।
    তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, ১৮ লিটার আন্ডার-সিট স্টোরেজ স্পেস, একটি ইউএসবি চার্জিং পোর্ট এবং স্ট্যান্ডার্ড এবিএস। রয়েছে একটি ফুল-এলইডি লাইটিং সিস্টেম এবং সম্পূর্ণ ভাবে ডিজিটাল কনসোল যা গুচ্ছের ডেটা দেখাতে পারে।
    স্কুটারটি উপলব্ধ হয়েছে দুটি ট্রিমে, সিবিএস এবং ডুয়াল-চ্যানেল এবিএস। এদের মধ্যে সিবিএস মডেলের দাম ২৫ লাখ ৮০ হাজার আরপি বা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। অন্য দিকে ডুয়াল-চ্যানেল এবিএস মডেলে দাম ২৮ লাখ ৫০ হাজার আরপি।
    এই ভ্যারিও স্কুটারের আরও দুটি মডেল রয়েছে, ভ্যারিও ১২৫ এবং ভ্যারিও ১৫০। ইন্দোনেশিয়ার মার্কেটে এই দুই মডেলই খুব জনপ্রিয়। সেই লাইন-আপেই এবার যুক্ত হচ্ছে হোন্ডা ভ্যারিও ১৬০। তবে আমাদের দেশিয় বাজার, এমনকি ভারতের বাজারেও এই স্কুটার আসার সম্ভাবনা নেই।
    সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস

    Lab Scan