বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল কাশিমপুর ও চুড়ামনকাটি ইউনিয়ন বিজয়ী

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ বসুন্দিয়া ইউনিয়নের ফুটবলার ও কর্মকর্তাদের খেলোয়াড়সুলভ আচরণের কারণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় অনুর্ধ্ব-১৭ গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের যশোর সদর উপজেলা পর্যায়ের শেষ কোয়ার্টার ফাইনাল খেলাটি আলোর মুখ দেখেনি। গতকাল বুধবার যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলাটি ৫৪ মিনিট মাঠে গড়ানোর পর শুধুমাত্র বসুন্দিয়া ইউনিয়নের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের অখেলোয়াড়সুলভ আচরণের কারণে খেলাটি আর মাঠে গড়ায়নি। এর আগ পর্যন্ত সময়ে ইমরানের দেয়া গোলে তারা ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল। কিন্তু খেলার ৫০ মিনিটে তাদের প্রতিপক্ষ কাশিমপুর ইউনিয়ন একটি পেনাল্টি শর্ট লাভ করে। সেই পেনাল্টি শর্ট থেকে ইমন গোল করে দলকে সমতায় ফেরান । এই গোলের পর ৪ মিনিট অর্থাৎ ৫৪ মিনিট পর্যন্ত খেলা মাঠে গড়ানোর পর বসুন্দিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রিয়াজুল ইসলাম খান রাসেলসহ তার দলের খেলোয়াড় কর্মকর্তারা পেনাল্টি শর্টকে কেন্দ্র করে আর খেলতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তারা রেফারির পেনাল্টি শর্টের সিদ্ধান্তকে ৪ মিনিট পর মানতে না রাজি হয়ে মাঠ ত্যাগ করেন। অথচ রেফারি যখন পেনাল্টি দেন তখনও তাদের কোন আপত্তি ছিল না। এমনকি পেনাল্টি থেকে গোল হওয়ার পরও তাদের কোন আপত্তি ছিল না। এরপর নির্দিষ্ট সময়ের পর পর্যন্ত রেফারি তাদের অপেক্ষায় থাকার পর তারা মাঠে উপস্থিত না হওয়ায় রেফারি শেষ বাঁশি বাজান। সাথে সাথে টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষ নিয়ম অনুযায়ী কাশিমপুর ইউনিয়নকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। এ খেলায় বিজয়ী দলের সাকিব সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন। এর আগে একই মাঠে অনুষ্ঠিত কোয়ার্টার ফাইনালের অপর খেলায় ট্রাইব্রেকারে দেয়াড়া ইউনিয়নকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে চুড়ামনকাটি ইউনিয়ন। এ খেলাটি নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে ড্র হওয়ার পর ট্রাইব্রেকারের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। এ খেলায় বিজয়ী দলের গোলরক্ষক রায়হান সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।

ভাগ