ফেনসিডিল ও সোনা চোরাচালান মামলায় যশোরে দুই ব্যক্তির বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে ফেনসিডিল ও সোনা চোরাচালালের দুই মামলায় ২ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তাজুল ইসলাম এবং জুয়েল অধিকারী পৃথক এই রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পিপি মো. আসাদুজ্জামান।
সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, বেনাপোলের পুটখালি উত্তরপাড়ার মৃত জাহাবক্সের ছেলে ফারুক হোসেন ও তালসারি পাটবাড়ি গ্রামের জনৈক মকবুল হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া রফিকুল শেখের ছেলে ইলিয়াস শেখ।
সোনা চোরাচালান মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বেনাপোলের পুটখালি ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বালুরমাঠ খেজুরবাগান নামক স্থানে অভিযান চালান। সে সময় তারা সেখান থেকে ফারুক হোসেনকে সোনার ৯টি বারসহ আটক করেন। এ ঘটনায় বিজিবির ল্যান্স নায়েক আনোয়ারুল হক চোরাচালান দমন আইনে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা করেন। এ মামলায় আসামি ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাজুল ইসলাম তাকে ১০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন।
অপরদিকে, ২০১৩ সালের ৮ নভেম্বর রাতে বেনাপোলের কাগজপুকুরস্থ হক ফিলিং স্টেশনের সামনে অভিযান চালিয়ে যাত্রীবিহীন একটি বাস থেকে ১ হাজার ১৭১ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করেন র‌্যাব সদস্যরা। সে সময় গাড়ির চালক ইলিয়াস শেখকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাবের এসআই বায়েজীদ আকন মাদক চোরাচালান দমন আইনে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা করেন। এই মামলায় আসামি ইলিয়াস শেখের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক জুয়েল অধিকারী তাকে ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ১ মাসের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

 

Lab Scan