প্রেমের সত্যতা প্রমাণের জন্যে প্রেমিকার সামনে ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত হলেন প্রেমিক

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রেমের সত্যতা প্রমাণ করার জন্যে নিজের হাতে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত করেছেন প্রেমিক রবিন রতœ (২৬)। কিন্তু কোন লাভ হয়নি। পিতা মাতার সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েই প্রেমিকা মিতু দেউড়ী তার প্রেমকে অস্বীকার করেছেন। গত শুক্রবার সকালে যশোর শহরতলীর ধর্মতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
মিতু দেউড়ী ধর্মতলা বাসস্ট্যান্ড এলাকার স্টিফেন দেউড়ীর কন্যা। দু’বছর আগে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার বটবাড়ি গ্রামের আন্দ্রিয় রতেœর ছেলে রবিন রতেœর সাথে মিতুর প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর তারা আত্মীয় স্বজনের বাড়ি ঘুরে বেড়িয়েছেন। তারা পরস্পরকে বিয়ে করবেন এ প্রতিশ্রুতি নিয়ে চলেছেন। প্রেমিক রবিন রতœ ঢাকার মিরপুরে অবস্থিত কুয়াকাটা সিরামিক এন্ড ক্রোকারিজ-এর ম্যানেজার। রবিন রতœ জানিয়েছেন, তাদের প্রেমজ সম্পর্ক উভয় পক্ষ অবগত বিয়ে হবে এ বিশ্বাসে প্রেমিকা মিতু দেউড়ীর পেছনে তিনি আড়াই লাখ টাকা খরচ করেছেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকার পর হঠাৎ করে মিতু দেউড়ীর পিতা বিগড়ে যায়। রবিন রতেœর সাথে প্রেমজ সম্পর্ক রাখতে তিনি মেয়েকে নিষেধ করেন। এরপর মিতু দেউড়ী তার প্রেমিকার কাছে ঘটনা জানিয়েছেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। পিতার চাপে মিতু দেউড়ী তার সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলেন। বিষয়টি জানতে পেরে প্রেমিক রবিন রতœ ঢাকা থেকে চলে আসেন মিতুর বাড়ির। এ সময় তার মাতাও সঙ্গে ছিলেন।
রবিন রতœ জানিয়েছেন, সকাল ১০টার দিকে তার সকলে মিতু দেউড়ীর বাসায় যান। এরপর শুরু হয় আলোচনা। এক পর্যায়ে মিতু দেউড়ী তার, সিদ্ধান্ত পাল্টে পিতার পক্ষ নিয়ে বলেন তিনি সম্পর্ক রাখবেন না এবং তাকে বিয়ে করবেন না। মিতু দেউড়ীকে তিনি কত ভালবাসেন তার প্রমাণ করার জন্য তিনি নিজের হাতে ছুরিকাঘাত করেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রবিন রতœকে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রবিন রতœ বলেন, তিনি ভালবাসা প্রমাণ করার জন্য নিজের হাতে নিজেই ছুরিকাঘাত করেছেন। এ অবস্থা দেখে মিতুর পিতা নিজেকে রক্ষার জন্য যশোর কোতয়ালি থানায় রবিন রতেœর বিরুদ্ধে জিডি করেছেন।

Lab Scan