প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে অগ্রসর হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় হিক্কা

প্রচণ্ড শক্তি সঞ্চয় করে আরব সাগরের পশ্চিমাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় হিক্কা। আরব সাগরের দিকে অগ্রসর হতে থাকা এই ঘূর্ণিঝড় মঙ্গলবার ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৪৮ কিলোমিটার গতিতে আঁছড়ে পড়তে পারে ওমানে। সেখান থেকে গতিপথ বদলে ভারতের গুজরাট উপকূলে আঘাত হানার সম্ভাবনা রয়েছে হিক্কার। ঘূর্ণিঝড় হিক্কার প্রভাবে পড়তে পারে বাংলাদেশের উপকূলবর্তী কিছু জেলায়। ভারতের আবহাওয়া দফতর বলছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় ঘূর্ণিঝড় হিক্কা আরও শক্তি সঞ্চয় করে গুজরাট উপকূলের দিকে এগিয়ে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। হিক্কার প্রভাবে গুজরাট উপকূলে ঘণ্টায় প্রায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে প্রবল ঝড়ো হাওয়া। ইতোমধ্যে ভারতের উত্তর পাঞ্জাব থেকে মধ্যরাজস্থান হয়ে মধ্য গুজরাট পর্যন্ত পূবালি মৌসুমী বায়ু প্রবাহিত হচ্ছে। ভারতের আবহাওয়া দফতর গুজরাটের জেলেদের সাগরে মাছ ধরা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। গুজরাটের ভেরাভাল, পাকিস্তানের করাচির ৪৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং ওমানের মাসিরাহের ৭৬০ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণ পূর্ব সীমান্তে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হবে। আগামী বুধবার ওমানে হিক্কার প্রভাবে বড় ধরনের ক্ষয়-ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। আবহাওয়াবিদদের দাবি, ওমানে ঘণ্টায় ১৭ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে এই ঝড়। ২৫ সেপ্টেম্বর সকালের দিকেই ওমানের উপকূলবর্তী অঞ্চলে আছড়ে পড়তে পারে হিক্কা। হিক্কা আরব সাগরের পশ্চিমে ওমানের দিকে সরতে থাকলেও প্রবল ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে গুজরাট, কোঙ্কন, মহারাষ্ট্রের উপকূলবর্তী অঞ্চলেও। মঙ্গলবার ধরলে আগামী চার দিন গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, গোয়া, কোঙ্কন উপকূল, কেরালা, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লিতে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। ২৫ সেপ্টেম্বরের পর হিক্কা আরও পশ্চিমে ওমানের দিকে সরে যাবে। তারপর তার শক্তি কমতে থাকবে। হিক্কার প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকায় প্রবল জলোচ্ছ্বাস দেখা দিতে পারে। প্রায় ১৭ ফুট উঁচু ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে ওমানে।

ভাগ