পেঁয়াজ কিনতে ভয় পাচ্ছেন পাইকাররা

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ মাত্র একদিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা। ভারতের বাজারে নিত্য এ পণ্যটির মূল্য বাড়ায় ও আমদানি কম হওয়ায় দেশের বাজারে দাম বাড়ছে বলে দাবি আমদানিকারকদের। এদিকে প্রতিনিয়ত দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন পাইকাররা। এতে পেঁয়াজ কিনতে সাহস পাচ্ছেন না তারা। হিলি স্থলবন্দর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে, তবে আগের তুলনায় আমদানির পরিমাণ কমেছে। আগে নাসিক ও ইন্দোর জাতের পেঁয়াজ আমদানি হলেও এখন শুধু ইন্দোর জাতের পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে। বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) হিলি বন্দরে আমদানি করা পেঁয়াজ পাইকারিতে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) তা বেড়ে ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। শুক্রবার (১ অক্টোবর) আমদানিকারকদের ঘরগুলোতে একইদামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে।
হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজ কিনতে আসা পাইকার রফিকুল ইসলাম ও শাহাবুল হোসেন বলেন, ‘পেঁয়াজের আমদানি কমের কারণে গত সপ্তাহ থেকেই দাম বাড়ছে। আজ যে দামে বন্দর থেকে পেঁয়াজ কিনে মোকামে পাঠাচ্ছি, পরের দিন সেই দামে আর কিনতে পারছি না। প্রতিদিনই কেজি প্রতি ২/৩ টাকা করে বাড়ছে। এতে করে আমরা পেঁয়াজ কিনতে ভয় পাচ্ছি। যার কারণে পেঁয়াজ না কিনে বাজার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। যেহেতু দুর্গাপূজা উপলক্ষে বন্দর দিয়ে পেঁয়াজের আমদানি বন্ধ থাকবে, তার ওপর দেশীয় পেঁয়াজের দাম বেশি, ফলে মোকামে ভারতীয় পেঁয়াজের চাহিদা রয়েছে। কিন্তু বাড়তি দামের কারণে আমরা পেঁয়াজ কিনতে সাহস পাচ্ছি না। আগে যেখানে দিনে ৪-৫ ট্রাক পেঁয়াজ করে মোকামে পাঠাতাম, এখন সেখানে এক ট্রাক করে পেঁয়াজ কিনছি। তবুও লোকসানের শঙ্কায় আছি।’
হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ বলেন, ‘পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। তবে দামের ওপর কিছুটা প্রভাব পড়েছে। দাম বাড়ার কারণ হলো- ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে অতিবৃষ্টি ও বন্যায় পেঁয়াজ নষ্ট হয়েছে। ফলে আগে যেসব অঞ্চল থেকে পেঁয়াজ আসতো, এর মধ্যে কিছু কিছু জায়গা থেকে পণ্যটি আসা বন্ধ রয়েছে। এর ওপর সামনে দুর্গাপূজা, এ সময় কিছু দিন বন্দরের আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে। যার কারণে মোকামগুলোতে পেঁয়াজের লোডিং আগের চেয়ে কম হচ্ছে। এছাড়া শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি ও শনিবার গান্ধী জয়ন্তীর কারণে বন্দর দিয়ে আমদানি বন্ধ থাকবে ফলে দেশের বাজারে মোকামগুলোতে পেঁয়াজের চাহিদা বাড়ায় দাম বাড়ছে। এসব কারণে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়ছে। তবে পূজার বন্ধ শেষে বন্দর দিয়ে আগের মতো পেঁয়াজ আমদানি শুরু হবে। এতে করে দাম কমে আসবে।’ হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, ‘এ বন্দর দিয়ে পেঁয়াজের আমদানি আগের তুলনায় অনেকটা কমেছে। আগে যেখানে বন্দর দিয়ে ২৫-৩০ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি হতো বর্তমানে তা কমে ৫-১০ ট্রাকে নেমেছে। ২৫ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্দর দিয়ে ৭১ ট্রাকে দুই হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।’

Lab Scan