পুলিশ কর্মকর্তাকে শায়েস্তা করতে ডিআইজি’র কাছে এমপি পরিচয় !

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মাগুরার শালিখা থানা পুলিশের একজন এসআইকে শায়েস্তা করার জন্য ডিআইজি’র কাছে নিজেকে বাগেরহাটের সংসদ সদস্য (এমপি) পরিচয় দিয়েছিলেন। যশোরে ডিবি পুলিশের হাতে আটক প্রতারক মাহমুদ ইসলাম রকি বুধবার আদালতে দেয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এ কথা জানিয়েছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক গৌতম মল্লিক তার জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। মাহমুদ ইসলাম রকি মাগুরার শালিখা উপজেলার বুনাগাতি গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে। বর্তমানে তিনি যশোর সদর উপজেলার কিসমত নওয়াপাড়ার প্রফেসর মিজানুর রহমানের বাড়িতে ভাড়া থাকেন।
জবানবন্দিতে মাহমুদ ইসলাম রকি বলেছেন, শালিখা থানা পুলিশের এক এসআই তার মা ও স্ত্রীকে হুমকি দিয়েছিলেন। এ কারণে ওই এসআইকে শায়েস্তা করতে তিনি ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে খুলনার ডিআইজি’র মোবাইল ফোন নম্বর সংগ্রহ করেন। পরে গভীর রাতে ডিআইজিকে ফোন দিলে তিনি রিসিভ করেননি। এরপর নিজেকে বাগেরহাটের সংসদ সদস্য পরিচয়ে ডিআইজি’র মোবাইল ফোনে একটি মেসেজ পাঠান। এরপর ডিআইজি তাকে ফোন করলে তিনি (মাহমুদ ইসলাম রকি) নিজেকে বাগেরহাটের সংসদ সদস্য পরিচয় দেন। এ সময় তিনি ঢাকায় আছেন এই কথা বলে ডিআইজিকে শালিখা থানার ওই এসআইকে বদলি করতে বলেন। কিন্তু ডিআইজি ইংরেজিতে কথা বললে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন। এব্যাপারে যশোর পুলিশ সুপারকে খোঁজ নিতে বলা হয় ডিআইজি অফিস থেকে। পরে যশোরের ডিবি পুলিশ মোবাইল ফোনের কললিস্ট সংগ্রহ করে মাহমুদ ইসলাম রকিকে আটক করে। এব্যাপারে ডিবি পুলিশের এসআই শামীম হোসেন বাদী হয়ে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে কোতয়ালি থানায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন।

ভাগ