পিটার হাসকে প্রহারের হুমকি নিয়ে যা বললো যুক্তরাষ্ট্র

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাসকে চট্টগ্রামের চাম্বল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মুজিবুল হক চৌধুরীর প্রহারের হুমকির প্রেক্ষিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল বলেছেন, এ বিষয়টি তিনি বড় পরিসরে বলতে চান। তা হলো- আমি মনে করি এরকম সহিংস বক্তব্য (ভায়োলেন্ট রেটোরিক) গভীরভাবে অসহযোগিতামূলক (আনহেল্পফুল)। আমরা আশা করবো কূটনীতিকদের বিষয়ে ভিয়েনা কনভেনশনের অধীনে নিরাপত্তা দিতে যেকোনো দেশের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আমাদের তো কূটনীতিক ও স্থাপনার নিরাপত্তার গুরুত্ব সর্বাধিক। সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারির এক প্রশ্নের জবাবে বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন বেদান্ত প্যাটেল। মুশফিক তার কাছে জানতে চান, বাংলাদেশে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় এক নেতা ঢাকায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত পিটার হাসকে পিটানোর হুমকি দিয়েছেন একটি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের পক্ষে তার ভূমিকা রাখার জন্য। কূটনীতিক ও স্টাফরা যে হুমকির সম্মুখীন তার প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্র কী নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে। তার প্রশ্নের জবাবে বেদান্ত প্যাটেল ওই মন্তব্য করেন।
মুশফিক তার কাছে আরও জানতে চান- বাংলাদেশে বিরোধী দলের আট হাজারের বেশি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বেতন বৃদ্ধি করে সর্বনি¤œ বেতন নির্ধারণের দাবিতে আন্দোলন করার কারণে ৩ জন গার্মেন্ট শ্রমিককে হত্যা করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র আগেই বলেছে, তারা কোনো রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করে না।
এর প্রেক্ষিতে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো আরেকটি একপক্ষীয় নির্বাচনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এ পরিস্থিতির বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র কি মনে করছে? এমন প্রশ্নের জবাবে বেদান্ত প্যাটেল বলেন, আমরা কোনো প্রার্থী বা কোনো দলকে সমর্থন করি না। আমরা চাই অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সবাই একসঙ্গে কাজ করবে। এ জন্য বাংলাদেশের সব মহলের সঙ্গে অব্যাহত যোগাযোগ করছে যুক্তরাষ্ট্র।
অন্য একজন সাংবাদিক জানতে চান- বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে এ বিষয়ে আপনি কিভাবে আস্থাশীল? এ প্রশ্নের জবাবে বেদান্ত প্যাটেল বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বাংলাদেশের জনগণ। আমরাও সেটা চাই। এ জন্য আমরা যোগাযোগ রাখছি সরকার, বিরোধী দল, নাগরিক সমাজ ও অন্যান্য অংশীদারদের সঙ্গে। বাংলাদেশি জনগণের স্বার্থে একসঙ্গে কাজ করতে তা করা হচ্ছে। অন্য একজন সাম্প্রতিক সহিংসতা নিয়ে প্রশ্ন করেন। জানতে চান, নির্বাচন থেকে প্রায় দুই মাস আগে যারা ভাঙচুর করছে, নির্বাচনী ব্যবস্থায় বাধা সৃষ্টি করছে, তাদের বিষয়ে ভিসা নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে কিনা। জবাবে বেদান্ত প্যাটেল বলেন, আমরা আশা করছি একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের।

 

Lab Scan