পাইকগাছায় প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পেতে হাইকোর্টের নিস্পত্তির আদেশ

পাইকগাছা (খুলনা) সংবাদদাতা ॥ খুলনার পাইকগাছা উপজেলায় শহীদ জিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে মো. মনিরুজ্জামান নিয়োগ পেলেও দু বছরের মধ্যে দায়িত্ব হস্তান্তর করেননি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। দায়িত্ব পেতে উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন করলে আদালত ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বিষয়টি নিস্পত্তি করার জন্য কর্তৃপক্ষকে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।
জানা যায়, উপজেলার গোপালপুর শহীদ জিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ৩ আগস্ট ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষায় মো. মনিরুজ্জামান প্রথম হন। নিয়োগ বোর্ডের সুপারিশ অনুযায়ী ২০১৮ সালের ১৭ জানুয়ারি সভাপতি রফিকুল ইসলাম তাকে নিয়োগপত্র প্রদান করেন। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অঞ্জলী রাণী শীলের চাহিদা মোতাবেক ১০ লাখ টাকা না দেওয়ায় তিনি দায়িত্ব হস্তান্তর করেননি বলে অভিযোগে দেখা যায়। ইতোমধ্যে দু বছরের অধিক সময় পার হওয়ায় মনিরুজ্জামান দায়িত্ব বুঝে পেতে গত ২৭ জুন হাইকোর্টে রিট পিটিশন করেন।
গত ২৮ আগস্ট আদালত বিষয়টি ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক যশোর শিা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক বিশ্বাস শাহিন আহমেদ মো. মনিরুজ্জামানকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে নিয়োগ প্রদান করে বিষয়টি অবহিত করার জন্য সভাপতি শহীদ জিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়কে পত্র প্রদান করেন। যার অনুলিপি জেলা প্রশাসক ও নিয়োগপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. মনিরুজ্জামানসহ সাতজনকে প্রদান করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অঞ্জলী রাণী শীল বলেন, মনিরুজ্জামানের কাছে কোন অর্থ চাওয়া হয়নি। আইনি জটিলতার কারণে তাকে দায়িত্ব দেওয়া সম্ভব হয়নি। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবদীন বলেন, আদালত বা বোর্ড থেকে এ ধরনের কোন নির্দেশনা পাইনি। বিদ্যালয়ের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া সুকায়নার মোবাইল ফোনে বার বার চেষ্টা করেও রিসিভ না হওয়ায় মতামত নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ভাগ