ন্যায় বিচারের দাবিতে লোহাগড়ায় মানববন্ধন

0

 

লোহাগড়া(নড়াইল)সংবাদদাতা॥ মৃত বোনের পৈত্রিক জমি ভোগদখলে নিতে আপন তিন ভাগ্নেসহ এক ভাগ্নে বৌ’র নামে ষড়যন্ত্রমূলক হত্যা মামলা দায়ের করবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিরীহ মানুষদের মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে ও ন্যায় বিচারের দাবিতে গ্রামবাসীরা রোববার সকালে মানববন্ধন করেছে। স্বাভাবিকভাবে স্ট্রোকে মৃত্যবরণের প্রায় ৮ মাস পর মামা আজাদ আলী খাঁ মামলাটি দায়ের করেন। নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ইতনা ইউনিয়নের চরপাচাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চরপাচাইল গ্রামের গোলাম নবী খাঁর ছেলে আজাদ আলী খাঁ, আহাদ আলী খাঁ এবং মেয়ে ভুলুয়ারা বেগম। প্রায় চার বছর আগে ভুলুয়ারা বেগমের মৃত্যু হয়। ভুলুয়ারা বেগম পৈত্রিক জমাজামি পাবেন প্রায় এক একর। যার বাজার মূল্য প্রায় ৪০ লাখ টাকা। ভুলুয়ারা বেগমের ছেলে মিরাজ মুন্সী, ইরান মুন্সী, নাসিম মুন্সী। মায়ের মৃত্যুর পর সন্তানেরা ওয়ারেশ সূত্রে মামাদের কাছে প্রায় এক একর সম্পত্তি পাবার কথা।  চলতি বছর ২৩ মার্চ নিজ বাড়িতে স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে তাদের ছোট মামা আহাদ আলী খাঁ মৃত্যুবরণ করেন এবং আত্মীয়স্বজন গ্রামবাসীরা স্বাভাবিক মৃত্যু ভেবেই তার লাশ দাফন করেন। কিন্তু মৃত্যুর প্রায় ৮ মাস পর তাদের বড় মামা আজাদ আলী খাঁ বাদী হয়ে আপন ভাগ্নে মিরাজ মুন্সী, ইরান মুন্সী, নাসিম মুন্সীসহ ভাগ্নে মিরাজ মুন্সীর স্ত্রী রতœা খানম ওরফে লাইজু খানমের নামে নড়াইল আমলী আদালত লোহাগড়ায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। আদালত লোহাগড়া থানার ওসির ওপর তদন্তের দায়িত্ব অর্পণ করে। মামলার বিবরণে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা নিজ বাড়িতে পরস্পর যোগসাজগে আপন মামা আহাদ আলী খাঁনের রাতের খাবারের সাথে বিষ মিশিয়ে দেয়। সেই খাবার খাওয়ার পর তার পেটে জালাপোড়া শুরু হয় এবং নিজ বাড়িতে ফিরে এসে মামলার বাদীসহ স্বাক্ষীদের ঘটনা জানান। এ সময় আহাদ আলী খাঁর মুখ দিয়ে বিষের গন্ধযুক্ত ফেনা বের হতে থাকে। বিষক্রিয়ায় ছটফট করে হাসাপতালে নেবার আগেই নিজ বাড়িতে রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে আহাদ আলী খাঁনের মৃত্যু হয়।
আলোচিত ওই মামলার ২নং সাক্ষী হলেন ইতনা ইউনিয়নের বর্তমান মেম্বার ফায়েক খাঁ। আহাদ আলী খাঁর মৃত্যুর এতদিন পর একজন জনপ্রতিনিধি প্রশাসনকে না জানিয়ে কিভাবে হত্যা মামলার সাক্ষী হলেন তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, যা বলার আমি আদালতেই বলবো। মানববন্ধনে বক্তব্যে চরপাচাইল গ্রামের আজিম সিকদার, নাসিম মুন্সী, ইলিয়াস মুন্সী, তানভীর আহমেদ রুবেল, মিন্টু ফকির, রতনা বেগমসহ গ্রামবাসীরা জানান, আপন বোনের পৈত্রিক জমি ভোগদখলে নিতে আজাদ আলী খাঁ তার আপন ভাগ্নেসহ ভাগ্নে বৌ’র নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে অযথা হয়রানি করছে। আমরা মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে ও ন্যায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছি। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রায় একহাজার মানুষ অংশ নেন। মামলার বাদীসহ অন্য সাক্ষীরা সাংবাদিকদের বলেন, আসামিরা দলে ভারী থাকায় মামলা করতে দেরি হয়েছে। গ্রাম্য সামাজিক অবস্থার পরিবর্তন হওয়ায় পরে মামলা করেছি। লোহাগড়া থানার ওসি মো. নাসির উদ্দিন বলেন,ঘটনার তদন্ত চলছে। সঠিক প্রতিবেদনই আদালতে দেয়া হবে।

Lab Scan