“নির্বাচন নয়, দলীয় কাউন্সিল করেছে আওয়ামী লীগ”

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ জনগণের করের প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা খরচ করে নির্বাচনের নামে ক্ষমতাসীন দলের জাতীয় সম্মেলন (কাউন্সিল) হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সরকার বিরোধী আইনজীবীদের মোর্চা ইউনাইটেড ল’ইয়ার্সফ্রন্টের আহ্বায়ক জয়নুল আবেদীন।
নির্বাচনকে ডামি আখ্যা দিয়ে তা বাতিলের দাবিতে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির দক্ষিণ হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি। নির্বাচন বাতিল এবং তৃতীয় বারের মত জনগণের ভোটাধিকার হরণ করার প্রতিবাদে আগামী ১৪ই জানুয়ারি সারাদেশের আইনজীবী সমিতিতে কালো পতাকা ও বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

লিখিত বক্তব্যে জয়নুল আবেদীন বলেন, গত ৭ তারিখের তথাকথিত নির্বাচনের নামে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় সম্মেলনে জনগণ তো দূরের কথা, আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকরাও উপস্থিত হয়নি। রয়টার্স, বিবিসি, ডয়চে ভেলে বাংলা এবং বিশ্বের বহুল প্রচারিত স্বনামধন্য সংবাদ মাধ্যম ৭ তারিখের কথিত ভোটে ভোটারের উপস্থিতি সর্বোচ্চ ২%-৫% বলে উল্লেখ করেছে। ১৯৭৫ এর ২৫ জানুয়ারি সংসদে যেভাবে একদলীয় বাকশাল ব্যবস্থা প্রবর্তিত হয়, ঠিক সেভাবেই গত ৭ই জানুয়ারি তথাকথিত নির্বাচনের মাধ্যমে দ্বিতীয় বাকশাল প্রতিষ্ঠার অপচেষ্টা করা হয়েছে বলে দেশের জনগণ মনে করে।
লিখিত বক্তব্যে বিএনপির চেয়াপারসন খালেদা জিয়া, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ ২৫ হাজারের অধিক রাজবন্দীদের অবিলম্বে মুক্তি এবং সরকারের ফরমায়েশি রায় বাতিলের দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড ল’ইয়ার্সফ্রন্টের কো-কনভেনর সুব্রত চৌধুরী, সুপ্রিম কোর্ট বারের এডহক কমিটির আহ্বায়ক মহসীন রশীদ, বারের সাবেক সম্পাদক বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল প্রমুখ।

Lab Scan