নাভারণে আকিজ বিড়ি শ্রমিক-কর্মচারী সংঘর্ষে আহত ১০, ফ্যাক্টরি বন্ধ ঘোষণা

0

ঝিকরগাছা (যশোর) সংবাদদাতা ॥ ঝিকরগাছা উপজেলার নাভারণে আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরিতে সোমবার সকালে বিড়ি শ্রমিক ও কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঝিকরগাছা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের ঘটনায় কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য বিড়ি ফ্যাক্টরি বন্ধ ঘোষণা করেছেন। জানা গেছে, সোমবার বেলা ১১টার দিকে আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টারির ম্যানেজার শান্ত কুমার সাহা পরিদর্শনে যান। এ সময় শ্রমিকদের বিড়ির কাঠি কিছুটা মোটা করে বানাতে বলেন। এনিয়ে বিড়ি শ্রমিক ও শান্ত কুমার সাহার সহকারী দিলীপ কুমার দাসের সাথে কাটাকাটি হয়। কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে দিলীপ কুমার দাস বিড়ি শ্রমিক খাদিজা খাতুন ও পিয়ারা খাতুনের চুল ধরে টানেন। ফলে শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে কয়েকজন ম্যানেজার ও বিল কাউন্টারের ওপর হামলা করে এবং অফিস ভাঙচুর করে। এসময় দু পক্ষের অন্তত ১০ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন।
আহতরা হলেন, উপজেলার কুন্দিপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের স্ত্রী খাদিজা খাতুন, এরশাদ আলীর মেয়ে মরিয়াম, ইসলামপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের স্ত্রী পিয়ারা খাতুন, আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরির ম্যানেজার শান্ত কুমার সাহা ও শামিম রেজা, সহকারী দিলীপ দাস, বিল কাউন্টার ফজলুর রহমান। আহতদের মধ্যে মরিয়াম, শামিম, পিয়ারা ও খাদিজা শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হলেও বাকিরা যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানাগেছে। এ ব্যাপারে বিড়ি ফ্যাক্টরির বিল কাউন্টার ফজলুর রহমান জানান, কিছু শ্রমিকের উস্কানিতে ম্যানেজারসহ কর্মকর্তাদের ওপর হামলা ও অফিস কক্ষ ভাঙচুর করা হয়েছে, যা নিন্দনীয়। ফলে মালিক পক্ষের সিদ্ধান্তে আপাতত ফ্যাক্টরি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে রবিবার অফিসার কুতুব উদ্দিন কর্তৃক ইসলামপুর গ্রামের শাহ্আলমের বিড়ি খাতা বন্ধ করে দেওয়ার কারণে এদিন বিশফঙ্খলা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে আহত শ্রমিক পিয়ারা খাতুন জানিয়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে মালিক পক্ষ শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে ফ্যাক্টরি খুলে দেবেন বলে ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ সুমন ভক্ত জানিয়েছেন। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত বিড়ি ফ্যাক্টরির ম্যানেজার শান্ত কুমার সাহার মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

Lab Scan