নওয়াপাড়ার একটি সড়কে হররোজ ঘটছে দুর্ঘটনা

0

নজরুল ইসলাম মল্লিক, অভয়নগর (যশোর)॥ শিল্প-বাণিজ্য ও বন্দর নগরী যশোরের নওয়াপাড়া স্টেশন বাজারের একটি সড়ক যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। এখানে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। মালামাল বোঝাই ট্রাক বড় বড় গর্তের মধ্যে পড়ে যেন আর উঠতেই চায়না। দীর্ঘ সময় চেষ্টা করে কিছু কিছু ট্রাক ওই গর্ত থেকে উঠতে পারলেও অধিকাংশ মাল বোঝাই ট্রাক গর্ত থেকে উঠতে গিয়ে এক্সেল ভেঙ্গে পড়ে থাকতে দেখা যায়। আবার কখনও কখনও লোড গাড়ির মালামালা পড়ে গিয়ে ঘটে আরেক বিপত্তি। এ নিয়ে ব্যবসায়ীরা আছেন চরম বিপাকে।
জানা যায়, যশোর-খুলনা মহাসড়কের স্টেশন বাজারের শেখ ব্রাদার্স ও গোল্ডেন এন্টারপ্রাইজের মাঝখান দিয়ে ভৈরব নদের দিকে বয়ে গেছে ছোট্ট একটি সড়ক। যে সড়কটি দীর্ঘদিন পড়ে আছে অযন্ত আর অবহেলায়। চলতি বৃষ্টির মৌসুমে সড়কের বড় বড় গর্তে হাটু পানি জমে আছে। বিশেষ করে আফিল ট্রেডার্সের সামনে সবচেয়ে বড় গর্তটি যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। তবে রেলওয়ে ও নওয়াপাড়া পৌরসভার রশি টানাটানিতে এই সড়কটির এমন দুর্গতি বলে জানা গেছে। কেউ সংস্কার কিংবা সড়কটি নির্মাণে এগিয়ে আসছেনা। এনিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন ওই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী ট্রাক ও দুপাশের ব্যবসায়ীরা।
স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, ভৈরব নদের তীরে রয়েছে বেশ কয়েকটি ঘাট ও গোডাউন। তার ভেতর উল্লেখযোগ্য মাস্টার কর্পোরেশনের ঘাট, দি গোল্ডেন ও গোল্ডেন এন্টারপ্রাইজের ঘাটসহ বেশ কয়েকটি ঘাট। এছাড়াও এই সড়কের শেষ মাথায় রয়েছে এলজিইডির বড় গোডাউন। যা ব্যক্তি মালিকানায় ভাড়া দেয়া হয়েছে। প্রতিদিন এসব ঘাট থেকে সার, সিমেন্ট, কয়লা, গম, ভুট্টাসহ নানা প্রকার মালামাল লোড নিয়ে নানা গন্তব্যে ছুটে চলে ট্রাক। কিন্তু লোডেড গাড়ি এই সড়ক দিয়ে চলাচলের একেবারেই অনুযোগী হয়ে উঠেছে। অথচ এটা দীর্ঘদিনেও সংস্কার কিংবা নির্মাণ করা হয়নি। তাছাড়াও ওই সড়কের পাশেই উপজেলা কৃষি অফিসের নতুন ৪ তলা বিশিষ্ট নান্দনিক ভবন তৈরি করা হচ্ছে। অথচ তাদেরও কোন মাথা ব্যথা নেই।
এ ব্যাপারে নওয়াপাড়া পৌরসভার মেয়র সুশান্ত কুমার শান্ত জানান, নওয়াপাড়া পৌরসভার পরিত্যক্ত ভবনের পাশ দিয়ে যে রাস্তাটি ভৈরব নদের দিকে গিয়েছে ওই সড়কটি পৌরসভার না হওয়ায় দীর্ঘদিন এভাবে পড়ে রয়েছে। ওই সড়কটি রেলওয়ের হওয়ার কারণে আমরা নির্মাণ করতে পারিনি। হাল ম্যাপে সড়কটি নওয়াপাড়া পৌরসভার পরিত্যক্ত ভবনের সাথে একই ছকের মধ্যে রয়েছে জানালে তিনি বলেন, পৌরসভার পরিত্যক্ত ভবনটি অতিদ্রুত ভেঙ্গে নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে। নতুন ভবন নির্মাণ করার সময় ওই সড়কটি একই সাথে উন্নয়ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

 

Lab Scan