ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের এখতিয়ার ডাকসুর নেই : ভিপি নুর

ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করার এখতিয়ার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নেই বলে বিবৃতি দিয়েছেন সংগঠনটির ভাইস প্রেসিডেন্ট (ভিপি) নুরুল হক নুর। শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এসব বলেন। বিবৃতিটি হুবুহু তুলে ধরা হল, গতকাল ২৬/০৯/২০১৯ ইং তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এর মিটিংয়ে ডাকসুর এজিএস ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, সাহিত্য সম্পাদক মাজহারুল কবির শয়ন ও সদস্য রাকিবুল ইসলাম এর দাবিতে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের প্রস্তাব পরিপ্রেক্ষিতে আমার বক্তব্য ছিল নিম্নরূপ :
বাংলাদেশ সংবিধান মোতাবেক প্রচলিত আইন ও নিয়মকানুন মেনে যেসব রাজনৈতিক দল তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে কিংবা যেসব ধর্মভিত্তিক দল তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে কিংবা যে সব ধর্ম ভিত্তিক দল নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন নিয়ে রাজনীতি করছে ঢাবিতে তাদের ছাত্র সংগঠনের রাজনীতি নিষিদ্ধকরণে ডাকসু বা ঢাবি কর্তৃপক্ষের কোনো এখতিয়ার নেই। সুতরাং এ ধরনের সিদ্ধান্ত আমরা ডাকসু থেকে নিতে পারি না। তাই ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নয় বরং উগ্রপন্থী, সন্ত্রাসী ও মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক সংগঠন যাতে ঢাবিতে কোন ধরনের কার্যক্রম চালাতে না পারে সেজন্য ডাকসু থেকে প্রশাসনকে কার্যকর ব্যবস্থা না পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছি। মিটিংয়ের এক পর্যায়ে ৩৪ জন ছাত্রলীগের নেতার অবৈধভাবে ভর্তি ও জিএস এর পদে থাকা নিয়ে আলোচনা তুললে অবৈধ ভর্তি হওয়া ডাকসু নেতাদের ব্যক্তি আক্রমণাত্মক কথাবার্তায় আমি সভা বর্জন করে বের হয়ে আসি। আমার অনুপস্থিতিতে তারা নিজেদের মতো করে সংযোজন-বিয়োজন করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে এবং তা ডাকসু এজিএস সাদ্দাম হোসেনের স্বাক্ষরসহ প্রকাশ করে। যা সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নয়।
উল্লেখ্য, গতকাল ডাকসুর মিটিংয়ে ডাকসুর সাহিত্য সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম শয়ন ধর্মভিত্তিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের প্রস্তাব উত্থাপন করলে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে আসা সব সদস্য সর্বসস্মতিক্রমে প্রস্তাবটি সমর্থন করেন। ধর্মভিত্তিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্তের বিষয়ে ডাকসুর গঠনতন্ত্র এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ও সিন্ডিকেটে যেন একটি ধারা সংযোজন করা হয়, সে ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনকে আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্রলীগ থেকে আসা ডাকসু সদস্যরা।

ভাগ