ঢাকায় ঢুকে মির্জা ফখরুল বললেন, ‘এটা তাদের জমিদারি’

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ঢাকায় ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, এটাই হচ্ছে তাদের কথা বলার চরিত্র ও মানসিকতা। তাদের সব কিছুর মধ্যে একটা সন্ত্রাসী ব্যাপার থাকে। এটা হচ্ছে তাদের জমিদারি। তারা এই ধরনের কথা বলে।
বৃহস্পতিবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, আমরা এই ধরনের কথা গুরুত্ব দেই না। কারণ অতীতে আমরা এগুলো বহুত (অনেক) ফেস করেছি। এগুলো নিয়ে আমরা চিন্তাও করি না। কে কী বললো, এতে বাংলাদেশের জনগণের কিছু যায় আসে না। জনগণের লক্ষ্য তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন।
এর আগে গতকাল বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে মেয়র তাপস বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আর ঢাকায় ঢুকতে দেওয়া হবে না। বিএনপি মহাসচিব লজ্জায় ঠাকুরগাঁওয়ে গিয়ে মুখ লুকিয়েছেন।
বিএনপির বগুড়া টু রাজশাহী রোডমার্চের নাটোরে গাড়ি বহরের আওয়ামী লীগের হামলার পর গাড়িতে আগুন দেয়ার প্রসঙ্গ তুলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সন্ত্রাস, অগ্নি সন্ত্রাস এখন কারা করে তা পরিষ্কার হয়ে গেছে।
মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ যেভাবে পারছে সেভাবে তারা দেশটাকে সেই দিকে নিয়ে যাচ্ছে। সব ক্ষেত্রে তারা রাষ্ট্রীয় যন্ত্রকে ব্যবহার করে যাচ্ছে। এমনকি রাষ্ট্রীয় যন্ত্রকে নিজেদের স্বার্থে সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার করছে।
তিনি বলেন, নাটোরে আমাদের নেতাকর্মীদের গাড়ি বহরের হামলা করে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। ঘটনার আশপাশে থাকা মানুষ যদি এগিয়ে না আসত তবে গাড়ির ভেতরে যারা ছিলেন তাদের আওয়ামী সন্ত্রাসীরা পুড়িয়ে মারত। সুতরাং সন্ত্রাস, অগ্নি সন্ত্রাস এখন কারা করে তা পরিষ্কার হয়ে গেছে।
এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে মহাসচিব এর আইনানুগ ব্যবস্থার জোর দাবি করেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। এর শেষ পর্যন্ত যাবো। পরবর্তী আচরণ কেমন হবে, তা নির্ভর করছে সরকারের ওপরে। সরকারের আচরণ কী হবে সেটার ওপরে আমাদের আন্দোলন নির্ভর করবে, এটা পরিষ্কারভাবে বলেছি।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কাছে আমাদের দাবি একটাই, প্লিজ রিজাইন। এবং জনগণকে তার জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করার সুযোগ দেয়া হোক।
এর আগে বিএনপি মহাসচিব স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকের সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরেন।

Lab Scan