ডেটা চুরির অভিযোগে এক ডজন অ্যাপ মুছে দিয়েছে গুগল

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ অ্যাপগুলোতে ব্যবহারকারীর অজান্তে তার ফোন নম্বর, লোকেশন ডেটা এবং ইমেইল অ্যাড্রেসের মতো ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করতে সক্ষম ক্ষতিকর কোড আছে জানার পর এই পদক্ষেপ নিয়েছে অ্যান্ড্রয়েড নির্মাতা।
    প্লে স্টোর থেকে মুছে দেওয়া অ্যাপগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি এক কোটিরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
    মুছে দেওয়া অ্যাপগুলোর মধ্যে আছে কিউআর কোড স্ক্যানার, আবহাওয়াবিষয়ক অ্যাপ এবং একটি ইসলামিক অ্যাপ।
    “নির্মাতা যেই হোক না কেন, গুগল প্লে’র সকল অ্যাপকে আমাদের নীতিমালা মানতে হবে,” বিবিসিকে বলেছেন এক গুগল মুখপাত্র।
    “আমরা যখন সিদ্ধান্ত নেই যে একটি অ্যাপ আমাদের নীতিমালা ভঙ্গ করছে, আমরা যথাযথ পদক্ষেপ নিই।”
    অ্যাপ নির্মাতাদের গুগল আগেই সতর্ক করে দিয়েছিল, ব্যবহারকারীর কোন কোন তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে সে বিষয়ে পরিষ্কারভাবে জানাতে হবে তাদের। ডেটা নীতিমালা না মানলে অ্যাপ প্লে স্টোরে নিষিদ্ধ হওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে বলে ২০২১ সালের ডিসেম্বরেই সতর্ক বার্তা দিয়েছিল গুগল
    সম্প্রতি মুছে দেওয়া অ্যাপগুলোতে ওই ক্ষতিকর কোডের উপস্থিতি আবিষ্কার করেন ‘ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালগেরি’র গবেষক জোয়েল রিয়ারডন এবং ‘ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া, বার্কলি’র গবেষক সার্গেই ইগেলম্যান।
    ওই গবেষকদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, অ্যাপগুলোতে একটি ‘সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কিট (এসডিকে)’ ছিল যা তৃতীয় পক্ষের কাছে ব্যবহারকারীদের ডেটা পাঠাচ্ছিল।
    প্লে স্টোর থেকে মুছে দেওয়া অ্যাপগুলোর মধ্যে আছে একটি বারকোড ও কিউআর কোড স্ক্যানার অ্যাপ। ওই অ্যাপটি ৫০ লাখের বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। ফোনের আইএমআই আইডেন্টিফিকেশন নাম্বারের মতো স্পর্শকাতর ডেটা গোপনে পানামার ‘মেজারমেন্ট সিস্টেমস’ নামের একটি কোম্পানির কাছে পাঠাচ্ছিল অ্যাপটি। পানামার কোম্পানিটির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় অবস্থিত ‘ভোস্ট্রোম হোল্ডিংস’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে বলে উঠে এসেছে বিবিসির প্রতিবেদনে।
    অন্যদিকে, ‘প্যাকেট ফরেনসিকস’ নামের আরেক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ‘ভোস্ট্রোম হোল্ডিংস’-এর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সখ্য রয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।
    নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়া অ্যাপগুলো ক্ষতিকর কোড মুছে দেওয়ার পর আবার গুগল প্লে স্টোরে ফেরার জন্য আবেদন করতে পারবে বলে বিবিসিকে নিশ্চিত করেছেন গুগল মুখপাত্র।
    মুছে দেওয়া অ্যাপগুলোর একটা বড় অংশ ইতোমধ্যেই প্লে স্টোরে ফিরেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। তবে, এবার ওই ক্ষতিকর এসডিকে ফাইলটি নেই অ্যাপগুলোতে।

    Lab Scan