ট্রলারে মিললো ৩০ কোটি টাকার চোরাই কাপড়

খুলনা প্রতিনিধি ॥ শুল্ক কর ফাঁকি দিয়ে সমুদ্রপথে চোরাচালান করে আনা প্রায় ৩০ কোটি টাকা মূল্যের শাড়ি ও অন্যান্য কাপড় জব্দ করেছে কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোন। মোংলা ফেয়ারওয়ে বয়া সংলগ্ন এলাকা থেকে এ পণ্য জব্দ করা হয়। গত ৮ জানুয়ারি দুপুর সোয়া ১২টার দিকে কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের বিসিজিএস সোনার বাংলা জাহাজ সমুদ্রে টহলরত অবস্থায় এগুলো আটক করে। এসময় ট্রলারের ১৮ ক্রু কেও আটক করা হয়। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশান কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ইমতিয়াজ আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রবিবার রাতে ট্রলার, জব্দকৃত কাপড় ও আটক ক্রুদের মোংলা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।
লেফটেন্যান্ট ইমতিয়াজ আলম বলেন, ‘অভিযান চলাকালে কোস্ট গার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারী দল দ্রত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় কোস্ট গার্ড জাহাজ পিছু ধাওয়া করে ১৮ ক্রুসহ অবৈধ শাড়ি কাপড় বোঝাই ট্রলারটি আটক করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে ট্রলার তল্লাশি করে ২২ হাজার ৬৮৩ পিস উন্নতমানের বিদেশি শাড়ি, ১২৪ পিস লেহেঙ্গা, ১২৭১ পিস থ্রি-পিছ, ৬০৪৫ পিস শাল এবং ২০ বোতল বিদেশি মদ জব্দ করা হয়। জব্দকৃত মালামালের বাজার মূল্য প্রায় ২৯ কোটি ৯৯ লাখ দুই হাজার ৭০০ টাকা। আটককৃত ১৮ জন ক্রু ও উদ্বারকৃত মালামাল পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রবিবার রাতে মোংলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।’ এই কর্মকর্তা আরও জানান, খুলনাসহ তৎসংলগ্ন এলাকায় অবৈধ বিদেশি কাপড়ের চোরাচালান রোধে বাগেরহাট, খুলনা ও সাতক্ষীরা এলাকায় কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোন টহল জোরদার করেছে। এই সাফল্য এ টহলেরই অংশ। তিনি জানান, একটি চক্র নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য সরকারি শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে বিদেশি শাড়ি-কাপড় চোরাইপথে আমদানি করছে। এ কারণে নদী ও সমুদ্রপথে চোরাচালান বন্ধে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

ভাগ