টিকা না নিলে মিলবে না পেট্রল-ডিজেল, কেনা যাবে না চাল-ডাল-নুন!

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ একবার ভাবুন তো কোনো এলাকায় শুধু সেসব মানুষকেই বিক্রেতারা নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং জ্বালানি সরবরাহ করতে পারবেন যারা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের কমপক্ষে একটি ডোজ গ্রহণ করেছেন! কেবল ভাবনা নয়! সত্য! ভারতের একটি জেলায় মানুষকে টিকা নিতে বাধ্য করার জন্য এহেন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের ঔরঙ্গাবাদ জেলা প্রশাসন রেশনের দোকান, গ্যাস এজেন্সি এবং পেট্রল পাম্পগুলোকে এমনই নির্দেশিকা পাঠিয়েছে বলে হিন্দুস্তান টাইমস নিশ্চিত করে জানিয়েছে- এ মাসের শুরুতেই জেলা কালেক্টর আদেশ দিয়েছিলেন যে, যারা ভ্যাকসিনের একটি ডোজও গ্রহণ করেননি তাদের ঔরঙ্গাবাদের ঐতিহাসিক স্থান এবং স্মৃতিস্তম্ভগুলোতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না। আর মঙ্গলবার জারি করা আদেশে ঔরঙ্গাবাদ জেলা কালেক্টর সুনীল চৌহান ন্যায্য মূল্যের দোকান, গ্যাস সংস্থা এবং পেট্রল পাম্পের কর্তৃপক্ষকে গ্রাহকদের টিকা নেয়ার প্রশংসাপত্র পরীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছেন। আদেশ অনুসারে, কেবল সেই সমস্ত নাগরিকরা রেশনের দোকান থেকে মুদি, এজেন্সিগুলোর গ্যাস সিলিন্ডার এবং পেট্রল পাম্প থেকে জ্বালানি কিনতে সক্ষম হবেন যারা ভ্যাকসিনের কমপক্ষে একটি ডোজ গ্রহণ করেছেন। যদি আদেশটি অনুসরণ না করা হয়, তাহলে প্রশাসন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন এবং মহামারি রোগ আইনের অধীনে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বলে জানান জেলা প্রশাসক। উল্লেখ্য, ঔরঙ্গাবাদ জেলায় টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা খুবই কম। আর সেজন্যই পরপর কঠোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছে জেলা প্রশাসন। ঔরঙ্গাবাদ জেলায় টিকার যোগ্য জনসংখ্যার প্রায় ৫৫ শতাংশকে এখনও পর্যন্ত টিকা দেওয়া হয়েছে। অথচ, রাজ্যে এই সংখ্যা ৭৪ শতাংশ। রাজ্যের তুলনায় জেলায় অনেক কম সংখ্যক টিকাদান সম্ভব হয়েছে। মহারাষ্ট্রের ৩৬ টি জেলার মধ্যে টিকা দেওয়ার নিরিখে ঔরঙ্গাবাদ ২৬ তম স্থানে রয়েছে।

Lab Scan