টাকার অভাবে বৃদ্ধ কাশেমের চিকিৎসা বন্ধ

0

স্টাফ রিপোর্টার, অভয়নগর॥ যশোরের নওয়াপাড়া শিল্পশহরে জটিল রোগে আক্রান্ত মুদি দোকানি মো. আবুল কাশেমের (৬০) টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ হয়ে গেছে। ধার দেনা ও সমিতির ঋণ নিয়ে এ যাবৎ চিকিৎসা চালিয়ে আসলেও নিঃস্ব পরিবারের পক্ষে আর চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এ জন্যে বৃদ্ধ পিতাকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান ও হৃদয়বানদের কাছে হাত পেতেছেন অসহায় সন্তান সোহাগ। বৃদ্ধ আবুল কাশেম উপজেলার গুয়াখোলার রেলবস্তির মৃত বদু মিয়ার ছেলে।
আবুল কাশেমের ছেলে মো. সোহাগ কাজি বলেন, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে আব্বা অসুস্থ হয়ে পড়লে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বিভিন্ন পরীক্ষার পর লিভারে জন্ডিস ধরা পড়ে। পরবর্তীতে ডাক্তারের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খুলনা মেডিক্যালে প্রায় এক মাস চিকিৎসা দেয়ার পর টাকার অভাবে আব্বাকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে হয়। জমানো ও সমিতি থেকে ঋণ করা টাকা নিয়ে বাড়ি রেখে তার চিকিৎসাও চলছিল। গত সেপ্টেম্বর মাসে তিনি পুনরায় অসুস্থ হয়ে পড়লে খুলনার আদ্-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে কয়েকটি পরীক্ষায় পেটে টিউমার, লিভার সমস্যা ও জটিল রোগের কথা জানিয়ে ঢাকায় শেখ রাসেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া এবং অপারেশন করানোর পরামর্শ দেন আদ্-দ্বীন হাসপাতালের ডা. মো. হানিফ ইমন। তিনি আরও বলেন, আব্বার অসুস্থতার কারণে রেলবস্তির সামনে মুদি দোকানটিও বন্ধ করতে হয়েছে। দরিদ্র পরিবার, আব্বা অসুস্থ হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ধারদেনা করে কয়েক লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। ডাক্তারদের মতে ছয় লাখ টাকা হলে তার অপরাশেনসহ চিকিৎসা করানো সম্ভব। এতো টাকা জোগাড় করা আমাদের মত দরিদ্র পরিবারের পক্ষে অসম্ভব। তাই সমাজের বিত্তবান ও হৃদয়বান মানুষের নিকট আর্থিক সহযোগিতা কামনা করছি। আপনাদের সহযোগিতায় আমার আব্বার অপারেশন ও চিকিৎসা করানো সম্ভব। সাহায্যের জন্য যোগাযোগ মো. সোহাগ কাজি- বিকাশ নং- ০১৯১২-৩৪৮৬৩৬।

 

Lab Scan