ঝিকরগাছায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে অপহরণের চেষ্টা

0

 

ঝিকরগাছা (যশোর) সংবাদদাতা॥ যশোরের ঝিকরগাছায় সাদিয়া সাহারা (১৫) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার শ্রীরামপুর আলিউলের মুরগী খামারের সামনে। শিক্ষার্থী সাদিয়া সাহারা উপজেলার শ্রীরামপুর সিদ্দিকীয়া আলিম মাদ্রাসার ২০২৩ সালের দাখিল পরীক্ষার্থী। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর পিতা জাহাঙ্গীর আলম বাদি হয়ে বুধবার সন্ধ্যায় ঝিকরগাছা থানায় ৪জনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযুক্তরা হলেন, শ্রীরামপুর গ্রামের আজিজুর রহমানের ছেলে হাসিবুল হাসান শান্ত (২৫), মৃত মুন্তাজ আলীর ছেলে আজিজুর রহমান (৫০) ও তার স্ত্রী রিনা বেগম (৪৫) এবং মিন্ট হোসেনের স্ত্রী স্বপ্না বেগম (৩০)। অভিযোগে জানা গেছে, শিক্ষার্থী সাদিয়া সাহারা প্রতিদিনের ন্যায় এদিন সকালে কোচিং ক্লাসের জন্য মাদ্রাসায় যাচ্ছিল। এ সময় ঘটনাস্থলে পৌঁছলে অভিযুক্ত হাসিবুল হাসান শান্ত তাকে অপহরণের উদ্দেশ্যে টানা হেচড়া শুরু করেন। এ সময় সাদিয়া সাহারা বাধা দিলে তাকে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানি করেন। এ সময় মাসুম নামের তার এক সহপাঠি এগিয়ে আসলে শান্ত চাকু বের করলে সে ভয়ে ফিরে যায়। এ সময় চাকু দেখে শিক্ষার্থী সাদিয়া সাহারা অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তখন তাকে নানাভাবে জখম করা হয়।
বর্তমানে শিক্ষার্থী সাদিয়া সাহারা ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। এদিকে খবর পেয়ে ঝিকরগাছা থানার এসআই মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাদ্রাসা শিক্ষার্থী সাদিয়া সাহারা ও অভিযুক্ত হাসিবুল হাসান শান্ত একে অপরের পরিচিত। এদিন ওই শিক্ষার্থী শান্তর সাথে যেতে না চাওয়ায় তার উপর এই হামলা চালিয়েছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন। তবে অভিযোগ পেলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। থানায় অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে ডিউটি অফিসার এস আই সুমন বিশ্বাস জানিয়েছেন। এদিকে উল্লেখিত ঘটনার সুষ্ঠবিচার দাবি করেছেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাজ্জাকসহ শিক্ষার্থীর পরিবার ও এলাকাবাসী।

Lab Scan