জ্ঞান বিনিময় হলে তা বৃদ্ধি পায়: যবিপ্রবি উপাচার্য

0

যবিপ্রবি সংবাদদাতা॥ যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) সঙ্গে ভারতের আসাম রাজ্যের গুয়াহাটিস্থ আসাম ডাউন টাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের (এমডিটিইউ) মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে। এর ফলে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময়, মার্স্টার্স পর্যায়ে যৌথ ডিগ্রি প্রদানসহ শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে নতুন সুযোগ সৃষ্টি হলো।
গতকাল সোমবার দুপুরে যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন এবং এডিটিইউয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নারায়ন চন্দ্র তালুকদার নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে সই করেন। দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দল তাঁদের প্রতিষ্ঠান থেকে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্ম জুমের মাধ্যমে সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন। যবিপ্রবির ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগ এ দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সমন্বয় করে।
সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময়সহ যৌথভাবে গবেষণার ফলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় অনেক দূর এগিয়ে যাবে। জ্ঞান বিনিময় হলে তা বৃদ্ধি পায়। আশা করি, এটির সুফল দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাই সমনভাবে পাবেন।
এডিটিইউয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নারায়ন চন্দ্র তালুকদার বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময়, মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থার মতো বিষয় এমওইউতে যুক্ত হওয়ায় দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে নতুন মেলবন্ধন হলো। শিক্ষা ও গবেষণার নতুন দ্বার উন্মোচিত হলো।
ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. অভিনু কিবরিয়া ইসলামের পরিচালনায় সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে যবিপ্রবির জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ডিন ড. তানভীর ইসলাম, আসমের ডাউন টাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ডিন ড. মৃন্ময় বসাক, ফিজিওথেরাপি এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ডা. ফিরোজ কবির, একই বিভাগের প্রভাষক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, ডা. কাজী মো. এমরান হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

Lab Scan