জামানাত হারিয়েছেন চৌগাছার নৌকার প্রার্থী সাড়ে ১১ হাজার ভোটের মধ্যে পেয়েছেন ৪১৭

0

স্টাফ রিপোর্টার, চৌগাছা (যশোর) ॥ সদ্য সমাপ্ত চৌগাছার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ধুলিয়ানী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী এস এম আব্দুস সবুর জামানাত হারিয়েছেন। তিনি প্রায় সাড়ে ১১ হাজার ভোটের মধ্যে মাত্র ৪১৭ ভোট পেয়েছেন। নৌকার প্রার্থীর এমন ভরাডুবিতে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনা অব্যাহত রয়েছে। মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে ধুলিয়ানীতে একজন ঠিকাদারকে নৌকা প্রতীকের ব্যবস্থা করায় এমন বিপর্যয় বলে দলের একাধিক নেতা মনে করছেন। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা ধুলিয়ানী ইউনিয়নে মোট ভোটার রয়েছে ১১ হাজার ৫’শ ৫৫ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ হাজার ৮’শ ১০ ও নারী ভোটার ৫ হাজার ৭’শ ৪৫ জন। গত ১১ নভেম্বর নির্বাচনে ওই ইউনিয়নে বৈধ ভোটের সংখ্যা ৯ হাজার ১’শ ২৭। বাতিল ভোট ১’শ ১৩ টি। উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার সেলিম রেজা জানিয়েছেন, বৈধ ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ ভোট পেলে জামানত থাকবে। সে অনুযায়ী হিসেব করলে উল্লেখিত বৈধ ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ হচ্ছে ১ হাজার ১’শ ৪০ ভোট। কিন্তু নৌকার প্রার্থী এস এম আব্দুস সবুর ভোট পেয়েছেন ৪১৭। নিয়ম অনুযায়ী তার জামানত বাতিল হয়েছে। উপজেলার দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে অবস্থিত চৌগাছার ধুলিয়ানী ইউনিয়ন। এর একপাশে যশোরের শার্শা ও ঝিকরগাছা উপজেলা, অপর পাশে হচ্ছে ভারতীয় সীমান্ত। ইউনিয়ন পরিষদের পাশ দিয়ে প্রবাহমান কপোতাক্ষ নদ। নানা কারণে ধুলিয়ানী চৌগাছাবাসীর কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ইউনিয়ন।
সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নৌকার প্রার্থী এসএম আব্দুস সবুর পেশায় একজন ঠিকাদার। দলীয় কর্মকাণ্ডে তাকে কখনো দেখা যায়নি। ইউনিয়নবাসীর সাথে তার কোনো সম্পর্ক নেই । টাকার বিনিময়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতাকে ম্যানেজ করে নৌকা প্রতীক নিয়েছিলেন। শুধু তাই না দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগে নেতৃবৃন্দের মতামতও গ্রহণ করা হয়নি। যার কারণে ফলাফল যা হবার তাই হয়েছে। জামানোত হারানো এসএম আব্দুস সবুরের কাছে জানতে চাইলে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও শন্তিপূর্ণ হওয়ার কারণে বিএনপি জামায়াতের ভোটাররা নৌকাকে হারাতে অন্য প্রার্থীকে ভোট দেয়। এর ফলে নৌকার চরম ভরাডুবি হয়েছে। আমি জামানত হারিয়েছি ঠিকই কিন্তু আমার কারও প্রতি কোনো ক্ষোভ নেই। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এস. এম হাবিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। তবে সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধুরীর কাছে জানতে চাললে তিনি বলেন, ধুলিয়ানী ইউনিয়ন থেকে ৫ জনের নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিয়েছেন তাকে নিয়ে নির্বাচনের মাঠে ছিলাম। নৌকার প্রার্থী অত্যন্ত ভদ্র মানুষ, নির্বাচনী প্রচারে জনগণের অংশগ্রহণও ছিল চোখে পড়ার মত। কিন্তু ভোটের ফলাফল এমন হবার কারণে দলের পক্ষ থেকে আমরা সকলেই ব্যথিত হয়েছি।

Lab Scan