জহুরপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির মামলা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার হুলিহট্ট গ্রামের ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেনকে অপহরণ, চাঁদা দাবি ও খুন-জখমের হুমকির অভিযোগে জহুরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দিলু পাটোয়ারিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার ওই ব্যবসায়ীর ভাই আইয়ুব আলী মামলাটি করেছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাহাদী হাসান অভিযোগটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত সাপেক্ষে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।
মামলার আসামিরা হচ্ছেন, উপজেলার নরসিংহপুর গ্রামের গোলাম মাওলা পাটোয়ারির ছেলে নুর মোহাম্মদ পাটোয়ারি, মৃত ইবাদত মিনের ছেলে নাজিম মিনে, মৃত সিরাজ পাটোয়ারির ছেলে ফুল মিয়া, হুলিহট্ট গ্রামের নাজমুল হুদার ছেলে মাসুদ রানা, তাহেরের ছেলে জসিম, রশিদ, সেকেন্দারের ছেলে ফারুক, মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে শামছু, নোয়াই মন্ডলের ছেলে মনজুর, নাজুমল হুদার ছেলে শান্ত। বাদীর অভিযোগ, তার ভাই আলমগীর হোসেন ঢাকায় ব্যবসা করেন। জহুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে চরম ক্ষিপ্ত হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও তার ভাই। তারা তার বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে এলাকা ছাড়ার চেষ্টা করছেন। গত ৩ অক্টোবর আলমগীর হোসেন ও তার স্ত্রীকে নিয়ে ইজিবাইকে করে শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন। পথে চুতুরবাড়িয়া বাজারের পাশে পৌঁছালে আসামিরা বাইকের গতিরোধ করে তাকে ধরে নিয়ে যান। তাকে জনৈক শান্তর দোকানে আটকে রাখেন। এ সময় আসামিরা চাঁদার দাবিতে তাকে মারপিট করেন এবং মানিব্যাগ ও সোনার চেইন ছিনিয়ে নেন। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার ভাইকে উদ্ধার করে।

ভাগ