জনগণ বাংলার মাটিতে আওয়ামী লীগকে আর কোনো প্রহসনের নির্বাচন করতে দেবে না : অনিন্দ্য ইসলাম অমিত

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেছেন, সরকার নির্বাচন নিয়ে যতই ষড়যন্ত্র করুক না কেন, কোনো লাভ হবে না। জনগণ তাদের সকল ষড়যন্ত্রক রুখে দেবে। জনগণ বাংলার মাটিতে আওয়ামী লীগকে আর কোনো প্রহসনের নির্বাচন করতে দেবে না। বিএনপির নেতৃত্বে এক দফার আন্দোলন চলছে, অচিরেই এই আন্দোলন চূড়ান্ত লক্ষ্যে পৌঁছাবে ফ্যাসিস্ট শেখ হাসিনা সরকারের পতনের মধ্য দিয়ে ।
শনিবার সকাল ১১টার দিকে স্থানীয় জেলা পরিষদ মিলনায়তনে কৃষকদলের কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে খুলনা বিভাগীয় প্রস্তুতিসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। আগামী ২ অক্টোবর ঢাকায় কৃষকদলের সমাবেশে সফল করার লক্ষ্যে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন কৃষকদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন।
সভায় অনিন্দ্য ইসলাম অমিত আরও বলেন,আমরা শহীদ জিয়ার আদর্শ বুকে ধারণ করে রাজনীতি করি। তিনি ১৯৭১ সালে যেভাবে দেশ মাতৃকার মুক্তির জন্য নিজের জীবন বাজি রেখে রনাঙ্গণে হানাদার বাহিনী বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন, তার আদর্শের উত্তরাধিকার হিসেবে আমরা দেশ ও জনগণের মুক্তির জন্য রাজপথে আন্দোলন করছি। এই আন্দোলন বিএনপির ক্ষমতার যাওয়ার জন্য নয়,ফ্যাসিস্ট শেখ হাসিনার কবল থেকে দেশ ও জনগণের মুক্ত করার জন্য আন্দোলন । আমাদের মধ্যে কোনো বিভেদ বিভাজন নেই। আমাদের লক্ষ্য একটাই নিশিরাতের সরকারকে হটিয়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায় করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা। সেই লক্ষ্যে আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে এক দফার আন্দোলন চলছে। সমগ্র জনগণ আজ বিএনপির নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। চলমান এক দফার আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণের বিজয় করেই ঘরে ফিরবো ইনশাআল্লাহ।
সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আমিরুজ্জামান শিমুল, সদস্য আবুল হোসেন আজাদ, কৃষকদলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী টি এস আইয়ূব, সহ-সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী বিশ্বাস, প্রকৌশলী মোমিনুর রহমান ও দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম। কৃষকদলের খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম বাদশা ও যশোর কমিটির আহ্বায়ক উপাধ্যক্ষ মকবুল হোসেনের যৌথ পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাড.সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন, নড়াইল জেলা বিএনপির সভাপতি বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব শরীফুজ্জামান, মাগুরা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আলী আহমদ, খুলনা মহানগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক বদরুল আলম খান, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক শাহজাহান আলী, খুলনা জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মনিরুল হক, কেন্দ্রীয় কৃষকদল নেতা অ্যাড.শিহাব উদ্দিন, আক্তারুজ্জামান সজল, গাজী আমিনুর রহমান, কাজী সাইফুল ইসলাম শিপন, এস এম কিবরিয়া, যশোর জেলা কৃষকদলের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুল ইসলাম কচি, সদস্য সচিব শিদকার সালাউদ্দিন, কৃষকদল নেতা মাহবুবুর রহমান, আমজাদ হোসেন, আক্তারুজ্জামান তালুকদার, নুরুল ইসলাম, তবারক হোসেন, লাভলু রহমান,মোল্লা কবির হোসেন, সালাউদ্দিন লিটন, আসাদ-উদ-দ্দৌলা জুয়েল, নবীর হোসেন, রুবায়েত হোসেন খান প্রমুখ।

Lab Scan