চৌগাছায় বিক্রি দাম ভালো পেয়ে ভুট্টা চাষে আগ্রহী হচ্ছে কৃষক

0

 

এম, এ, রহিম চৌগাছা (যশোর) ॥ চৌগাছায় দিন দিন ভুট্টা চাষে আগ্রহী হচ্ছেন কৃষকরা। উৎপাদন খরচ কম, দাম ভালো ও চাহিদা বেশি থাকায় এ আগ্রহ বাড়ছে তাদের মধ্যে।
উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্য কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম জানান, কম খরচে স্বল্প সময়ে লাভ বেশি হওয়ায় চৌগাছার কৃষকেরা এখন ভুট্টা চাষে ঝুঁকছেন। গত বছর এ উপজেলায় ৪৭০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ করা হয়। চলতি বছর উপজেলায় ৭৭০ হেক্টর জমিতে পাইওনিয়ার ৩৩.৫৫, কাবেরি ১০০ ও ব্র্যাকের যুবরাজ ও এলিট জাতের ভুট্টার আবাদ হয়েছে।
উপজেলার স্বরুপদহ ইউনিয়নের দেবালয় গ্রামের কৃষক আনোয়ার হোসেন আনার বলেন, কয়েক বছর ধরে লোকসানের কারণে সবজি, ধান ও পাট চাষে আগ্রহ হারায় চাষিরা। ধান চাষ কমলেও বেড়েছে ভুট্টা ও সরিষার চাষ। সে ক্ষেত্রে ভুট্টা চাষে ঝুঁকি কম। এ বছর আমার রয়েছে ৪ বিঘা ভুট্টা। কয়েক দিন পরেই ফল আসবে। ফলন ও দাম দুটিই ভালো পাবো বলে আশা করছি।
শনিবার (১১ নভেম্বর) সরেজমিনে উপজেলার ফুলসারা, নারায়ণপুর, পাশাপোল, পেটভরা, গুয়াতলী, সুখপুকুরিয়া, চুটারহুদা, দেবালয়, মাধবপুর, হাকিমপুর, পাতিবিলা, জগদিশপুর, নিয়ামতপুর, চাঁদপাড়া,স্বরুপদাহ, খড়িঞ্চা, আন্দারকোটা, রামকৃষ্ণপুর, নগরবর্ণিসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে, আগের চেয়ে এখন ভুট্টার আবাদ বেশি হচ্ছে। চাহিদা থাকায় ভুট্টার দামও ভালো পাচ্ছেন কৃষকেরা।
রামকৃষ্ণপুর গ্রামের কৃষক লাবলুর রহমান বলেন, আগের বছর যে ভুট্টার দাম ছিল প্রতি মণ ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা, সেই ভুট্টা এ বছর কৃষকেরা ১ হাজার ৪০০ থেকে ১ হাজার ৬০০ টাকায় বিক্রি করছেন। সে জন্য যেসব জমিতে গত বছরও অন্য আবাদ হতো, সে সব জমিতে চলতি বছর মাঠের পর মাঠ দেখা যাচ্ছে ভুট্টার চাষ।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোসাব্বির হুসাইন বলেন, চলতি বছর এ উপজেলায় ৭৭০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার আবাদ হয়েছে। দাম বেশি হওয়াতে কৃষকরা ভুট্টাচাষে আগ্রহী হয়ে উঠছে। কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের প্রশিক্ষণ, বিনামূল্যে বীজ-সারসহ বিভিন্ন সহযোগিতা করা হচ্ছে।

Lab Scan