চৌগাছায় দিনে মটরসাইকেল আর রাতে দোকান ঘরে চুরি

0

স্টাফ রিপোর্টার চৌগাছা (যশোর) ॥ যশোরের চৌগাছায় দিনে মটরসাইকেল আর রাতের আঁধারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুঃসাহসিক চুরি সংঘঠিত হয়েছে। হঠাৎ করে আবারও চোরের উপদ্রপ সকলকে ভাবিয়ে তুলেছে। ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসি চোরের উৎপাত থেকে রক্ষা পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
রবিবার জোহরের নামাজ আদায় করতে বাস মালিক সমিতি কার্যালয়ের পিছনে রাহমানিয়া জামে মসজিদে আসেন ইবনেসিনা ওষুধ কোম্পানীতে চৌগাছায় কর্মরত মিজানুর রহমান। তার ব্যবহৃত ১১০ সিসি একটি ডিসকভারী মটরসাইকেল যার নম্বর ঢাকা মেট্্েরা-হ ৬০৩৮১২ মসজিদের সামনে বকুল গাছের নিচে রেখে নামাজ আদায় করতে মসজিদে যান। নামাজ আদায় শেষে মসজিদের বাইরে এসে দেখেন তার মটরসাইকেল নেই। একপর্যায়ে বুঝতে পারেন মটরসাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে। একই সময় সেখানে রাখা আরও ৪টি মটরসাইকেলের লক তালা ভাঙলেও সেগুলো চোরেরা নিতে পারেনি বলে জানান স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সংশ্লিষ্ঠ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চুরি হওয়া মটরসাইকেলের সন্ধান মেলেনি।
এদিকে রবিবার দিবাগত রাতে চৌগাছা বাজারের মেইন বাসষ্টান্ডে অবস্থিত মহন সাইকেল ষ্টোরে দুঃসাহসিক চুরি সংঘঠিত হয়েছে। চোরেরা দোকান ঘরের পূর্বপাশের ভেন্টিলেটার ভেঙ্গে দোকানে প্রবেশ করে। এরপর ক্যাশের তালা ভেঙ্গে সেখান থেকে টাকা নিয়ে পুনরায় ওই ভাঙ্গা দিয়ে বের হয়ে গেছে। দোকান মালিক মহন জানায়, প্রতি দিনের মত রবিবার রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়িতে যাই। সকালে দোকান খুলে দেখি দোকানের পূর্ব পাশের ভেন্টিলেটার ভাঙ্গা। এরপর দেখি টেবিলের ক্যাশ বাক্্রও ভাঙ্গা। তবে ক্যাশে তেমন কোন টাকা না থাকায় এই বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছি। চুরির বিষয়টি বাজার ব্যবসা সমিতিকে অবহীত করা হয়েছে বলে তিনি জানান। বলাচলে হঠাৎ করেই বেড়েছে চোরের উপদ্রপ, তাই ব্যবসায়ীসহ সকলের মাঝেই এক ধরনের ভীতি কাজ করছে। চোরের উপদ্রপ থেকে রক্ষা পেতে ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসি আইন শৃংখলাবাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Lab Scan