ঘূর্ণিঝড় আম্পান পরবর্তী জরুরি উদ্ধার, ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সুপার সাইক্লোন ‘আম্পান’ পরবর্তী দুর্যোগ মোকাবিলায় সার্বিক ত্রাণ, উদ্ধার ও চিকিৎসা সহায়তা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশন। সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের দিক-নির্দেশনায় আগে থেকেই সেনাবাহিনী ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার কার্যক্রম, ত্রাণ তৎপরতা ও চিকিৎসা সেবা প্রদানে যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল। বর্তমানে তারা ঘূর্ণিঝড় আক্রান্ত এলাকাগুলোতে বেসামরিক প্রশাসনের সঙ্গে পরিদর্শন করে যৌথভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নিরূপন করছে।


এরই মধ্যে দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য যশোর সেনানিবাসের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা দল ও মেডিকেল টিম যশোর অঞ্চলের দশটি জেলাতে অতি স্বল্প সময়ের মধ্যে মোতায়ন করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর সদস্যরা দুর্যোগ উপদ্রুত এলাকাগুলোতে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করেন।


পাশাপাশি বিধ্বস্ত বসতবাড়ি, মসজিদ এবং অন্যান্য স্থাপনা পুনঃনির্মাণে সাধারণ মানুষদের সহায়তা করছে। এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় কবলিত বিভিন্ন এলাকায় খাদ্যসহায়তা হিসেবে সেনাবাহিনীর নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় প্রস্তুতকৃত ত্রাণ সামগ্রী অসহায় দুঃস্থ মানুষদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তারা পৌঁছে দিচ্ছে।


একইসঙ্গে করোনা মোকাবিলায় নিয়োজিত যশোর সেনানিবাসের টহল দল ১০ টি জেলায় বেসামরিক প্রশাসনের সহায়তার জন্য পাঠানো হয়েছে।


করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি এ সব টহল দল স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করছে এবং প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

ভাগ