গাজীপুরে কারখানা, নকিয়ার ফোনে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ একসময় কী রমরমা দিন ছিল নকিয়ার! সবার হাতে হাতেই ‘নকিয়া’। কিন্তু বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোবাইল সেটের দাপটে নকিয়া প্রায়ই ‘চুপ’। প্রতিযোগিতার বাজারে নকিয়া আবার আশা দেখতে পাচ্ছে। এরই মধ্যে তারা বাংলাদেশে কারখানা স্থাপন করেছে। দেশে উৎপাদিত এসব ফোনে লেখা থাকবে ’মেড ইন বাংলাদেশ’।প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে মোবাইল ফোন উৎপাদন করতে যাচ্ছে ফিনল্যান্ডভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নকিয়া। এরই মধ্যে কারখানা স্থাপনের জন্য ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার (বিডি) লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান বিটিআরসি থেকে প্রভিশনাল অ্যাপ্রুভাল পেয়েছে।
    প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাকিবুল কবীর বলেন, একই সঙ্গে ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার (বিডি) লিমিটেড অনুমতি পেয়েছে নকিয়া ব্র্যান্ডের ফোন অ্যাসেম্বিলিং বা উৎপাদনের। ২৬ জুন থেকে তারা উৎপাদন শুরু করবে।
    ২০১৭ সালের ২৪ মে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজলায় বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটির ৫ নম্বর ব্লকে ৫ একর জায়গা বরাদ্ধ নেয় ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার (বিডি) লিমিটেড। সেই সময় ভাইব্র্যান্ট ৪৫ মিলিয়ন ডলার বা বর্তমান হিসেবে ৩৮২ কোটি টাকা বিনিয়োগের উল্লেখ করেছিল। যেখানে সাইবার সিটি, ডেটা সেন্টার, মোবাইল এবং স্মার্ট ডিভাইসসহ এটিএম কার্ড, স্মার্টকার্ডসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদনের কথা জানিয়েছিল।
    কারখানার অবকাঠামোগত স্থাপনা এগিয়ে রখালেও এতদিন নানা জটিলতায় হ্যান্ডসেট উৎপাদনে যেতে পারেনি তারা। আমদানি করা যায়নি কারখানার যন্ত্রপাতিসহ হ্যান্ডসেটের যন্ত্রাংশও। চলতি বছরের মার্চে সব জটিলতা কাটিয়ে কাজ শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। প্রায় তিন মাসের মধ্যেই উৎপাদন শুরু করার জন্য তৈরি হয়ে যায় তারা।
    বাংলাদেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট উৎপাদন শিল্প ২০১৭ সালে যাত্রা শুরু করে। ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ওয়ালটনই বাংলাদেশে প্রথম উৎপাদন শুরু করেছিল। এরপর থেকে স্যামসাং, সিম্ফোনি, ওপ্পো, রিয়েলমিসহ মোট ১০টি ব্র্যান্ড দেশে মোবাইল ফোন উত্পাদন করতে শুরু করে। এছাড়া শাওমিসহ কয়েকটি ব্র্যান্ড দেশে কারখানার করার প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে।

    Lab Scan