খেলার খবর

পঞ্চপাণ্ডবের বাইরের শক্তি নিয়ে উজ্জীবিত বাংলাদেশ কোচ
মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ- এই পঞ্চপাণ্ডবের বাইরেও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শক্তি রয়েছে বলে মনে করেন কোচ স্টিভ রোডস। সেই শক্তি নিয়েও উজ্জীবিত তিনি। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপের আগে দারুণভাবে নিজেদের ঝালাই করে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন! নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের বহুজাতিক টুর্নামেন্টে শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছে টাইগাররা।
ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপে বড় ল্য পেয়েও টলেনি বাংলাদেশ। দলে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান না থাকলেও ল্েয পৌঁছাতে কোনো সমস্যা হয়নি তাদের। লড়াইটিতে জোরালো ভূমিকা ছিল না তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ ও মাশরাফীর মতো সিনিয়র ক্রিকেটারদেরও। সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেনের দাপুটে অর্ধশতকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। এতে দলের সিনিয়র পাঁচ খেলোয়াড়ের বাইরের শক্তিরই প্রমাণ মিলেছে বলে মনে করেন রোডস। ফাইনাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “দুই-তিনজন খেলোয়াড় বিশেষ ইনিংস খেলেছে। উদাহরণ হিসেবে আপনি মোসাদ্দেকের কথা বলতে পারেন। সে এখন একাদশের সবাইকে চিন্তার মধ্যে রাখবে।”
“এটাই দলের শক্তি। সে হয়তো খেলবে না। সে না খেললেও আমরা দারুণ অবস্থানে থাকবো। এটা আমাদেরকে আত্মবিশ্বাস দেবে। এতে করে আমরা কিছু বড় বড় ম্যাচ জিতে যেতে পারবো।” “এর অর্থ হলো বাংলাদেশ দল এখন আরো শক্তিশালী। এটাই আমরা চাই। একাদশে আমরা আরো গভীরতা চাই। গভীরতাটা আমরা পেয়ে গেলে, মানুষ পাঁচ তারকা নিয়ে কথা বলা থামিয়ে দেবে।” ৩০ মে দণি আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে আইসিসি দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসর। ২ জুন প্রোটিয়াদের বিপে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের মিশন।

কাঁধে অস্ত্রোপচার করাতে হচ্ছে মারাদোনার
স্পোর্টস ডেস্ক ॥ বেশ কিছু দিন ধরেই কাঁধের চোটে ভুগছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল কিংবদন্তি দিয়েগো মারাদোনা। ছুরির নিচে যেতেই হচ্ছে তাকে। বা কাঁধে অস্ত্রোপচার করাতে বিশ্বকাপ জয়ী এই ফুটবলার মঙ্গলবার মেক্সিকো থেকে দেশে ফিরেছেন বলে জানিয়েছে চীনের বার্তা সংস্থা সিনহুয়া। মারাদোনা বর্তমানে মেক্সিকোর দ্বিতীয় সারির কাব দোরাদোসের প্রধান কোচের দায়িত্বে আছেন। আর্জেন্টিনার বুয়েনস আয়ার্সে হবে তার অস্ত্রোপচার। সেড়ে ওঠার পর ৫৮ বছর বয়সী মারাদোনা আবার মেক্সিকোয় ফিরে যাবেন বলে জানিয়েছেন তার এজেন্ট ও বন্ধু মাতিয়াস মরলা। গত বছরের সেপ্টেম্বরে দোরাদোসের দায়িত্ব নেন মারাদোনা। তার অধীনে অল্পের জন্য শীর্ষ ডিভিশনে উতড়াতে ব্যর্থ হয়। কাবটির সঙ্গে দুই বছরের নতুন করেছেন বলে জানা গেছে। বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার মারাদোনা ১৯৯৭ সালে খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর নেওয়ার পর থেকেই নানা রোগে ভুগছেন। একটা পর্যায়ে মাদকের সঙ্গে ব্যাপকভাবে জড়িয়ে পড়া মারাদোনার জীবন সংশয়ে পড়ে গিয়েছিল ২০০৪ সালে। বুক ও শ্বাসযন্ত্রে তীব্র সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। পরে অবশ্য স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন।

ফর্মে ফেরা সৌম্যকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত রোডস
ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ওডিআই ক্রিকেটে সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছিল না সৌম্য সরকারের। নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচে করেছিলেন মাত্র ৫২ রান। বিশ্বকাপের ঠিক আগে দারুণ ফর্মে ফিরলেন বাংলাদেশ দলের এই ওপেনিং ব্যাটসম্যান। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে দলকে শিরোপা জেতাতে রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান। তিন ম্যাচ খেলে তিনটিতেই হাঁকিয়েছেন অর্ধশতক! বিশ্বকাপের আগে সৌম্যর এমন বিধ্বংসী ফর্মে দারুণ খুশি বাংলাদেশ দলের কোচ স্টিভ রোডস। তার দৃষ্টিতে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেই সৌম্য নিজের মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছেন। “ডিপিএলে (ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে) শতক ও ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর থেকেই নিজের মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে সৌম্য। কিছু কঠিন সময়ও পার করতে হয়েছিল তাকে।” “তাকে এই ফর্মে দেখাটা দারুণ। আমি মনে করি, কিছুটা হলেও মানুষ তার সমালোচনা ছাড়বে। কেননা সে অসাধারণ একজন খেলোয়াড়। আমরা তাকে সমর্থন দেই; তার পেছনে আছি। কিন্তু সবাই সবসময় এমন পারফরম্যান্স দেখাতে পারে না।”৩০ মে দণি আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে আইসিসি দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসর। ২ জুন প্রোটিয়াদের বিপে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের মিশন।

বিশ্বকাপে বয়সকে বুড়ো আঙ্গুল দেখাবেন তারা
স্পোর্টস ডেস্ক ॥ ইংল্যান্ড ও দণি আফ্রিকার মধ্যকার লড়াই নিয়ে ৩০ পর্দা উঠতে যাচ্ছে আইসিসি দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসরের। বরাবরের মতো এবারের আসরে রয়েছেন বেশ কয়েকজন ‘বুড়ো’ ক্রিকেটার। বয়সটা যাদের কাছে নিছক সংখ্যা! এই বিশ্বকাপই হতে পারে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাদের জন্য শেষ মঞ্চ।
০১. পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড ঘুরে থিতু হয়েছেন দণি আফ্রিকায়। বয়স ৪০ ছাড়িয়েছে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তিনিই সবচেয়ে বয়স্ক ক্রিকেটার। ৩২ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা ইমরান তাহির আগেই জানিয়ে দিয়েছেন এটাই তার শেষ বিশ্বকাপ। অবসর নিবেন ওডিআই ক্রিকেট থেকে। ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপে লেগ-স্পিনার তাহির সবটুকুই নিংড়ে নিতে চাইবেন সেটা আর বলার অপো রাখে না।
০২. বয়সের দিক থেকে তাহিরের পরেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। বয়স ৪০ ছুঁই ছুঁই। বিশ্বকাপে গেইলকে পাওয়া যাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সহঅধিনায়ক হিসেবে। ওয়ানডেতে ১১ হাজারের বেশি রান করা গেইলও জানিয়ে দিয়েছেন, বিশ্বকাপ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ক্যারিয়ারে দাঁড়ি টানবেন। তার শেষ ভেলকি দেখার অপোয় সবাই।
০৩. এই তালিকায় তিন নম্বরে আছেন পাকিস্তানের অলরাউন্ডারের মোহাম্মদ হাফিজ। বয়স ৩৯ ছুঁই ছুঁই। বিশ্বকাপের আগে ডানহাতের বুড়ো আঙ্গুলে দুই দুইবার করিয়েছেন অস্ত্রোপচার। নিজেকে ফিরে পাওয়ার লড়াইয়ে থাকা এই তারকা ক্রিকেটারের জন্য এটাই হতে পারে শেষ বিশ্বকাপ। ওয়ানডে ক্রিকেটে তার ঝুলিতে আছে ছয় হাজারের বেশি রান; দেড়শোর কাছাকাছি উইকেট!
০৪. হাফিজের পর বিশ্বকাপের সিনিয়রদের তালিকায় চারে রয়েছেন ৩৮ ছুঁই ছুঁই মহেন্দ্র সিং ধোনি। ক্যারিয়ারের চার নম্বর বিশ্বকাপ খেলতে নামছেন মাহী। ২০১১ আসরে তার নেতৃত্বে বিশ্বকাপ জিতে ভারত। গত আসরে খেলে সেমি-ফাইনাল। এবার ধোনির হাতে নেতৃত্ব না থাকলেও টিম ইন্ডিয়ার অন্যতম সেরা পারফর্মার হবেন বলে সবার ধারণা। বয়সের দিক থেকে ধোনির কাছাকাছিতেই আছেন পাকিস্তানের শোয়েব মালিক। ৩৭ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডারও পাকিস্তান দলের জন্য অন্যতম ভরসা।
০৫. সবচেয়ে বয়সীদের তালিকায় পাঁচ নম্বরে নাম শ্রীলঙ্কার জীবন মেন্ডিসের। বাঁহাতি এই স্পিন বোলিং অলরাউন্ডারের বয়স ৩৬ বছর। লঙ্কা দলের অন্যতম ভরসা।
০৬. ছয় নম্বরে একাধিক নাম, ৩৫ বছর বয়সে ক্যারিয়ারের চতুর্থ বিশ্বকাপ খেলতে নামছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। শ্রীলঙ্কার তারকা পেসার লাসিথ মালিঙ্গার বয়সও ৩৫ বছর। দণি আফ্রিকার স্টেইনের বয়সও ৩৫ বছর। তারা প্রত্যেকেই নিজ নিজ দলের অন্যতম প্রধান অস্ত্র।

ভাগ