খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে পাটকল শ্রমিকদের অনশন: কর্মসূচি ঘোষনা

0

শেখ বদরউদ্দিন ফুলবাড়ীগেট (খুলনা)॥ খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অনশন কর্মসূচি পালন করেছেন পাটকল শ্রমিকরা। খুলনায় ব্যক্তি মালিকানাধীন মহসেন, জুট স্পিনার্স, এ্যাজাক্সসহ বন্ধ জুট মিল চালু ও মিরেরডাঙ্গা শিল্প এলাকার আংশিক চালু সোনালী জুট মিল পুর্নাঙ্গরূপে চালু ও শ্রমিক-কর্মচারীদের চূড়ান্ত পাওনা পরিশোধের দাবিতে বেসরকরারী পাট, সুতা বস্ত্রকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের উদ্যেগে এ কর্মসূচি পালন করেন শ্রমিক কর্মচারীরা । বৃহস্পতিবার (২৪ফেব্রুয়ারী ) দুপরে কর্মসূচি চলাকালে শ্রমিক নেতারা বলেন, মালিকরা জুট মিল দেখিয়ে ব্যাংক থেকে কোটি কোটি টাকা ঋণ নেয়, এরপর সে টাকা অন্যখাতে ব্যয় করে, আর শ্রমিকরা তাদের গ্রাইচুটি ,পিএফ ও মজুরির জন্য রাজপথে নামে এটা খুবই দুখঃজনক।
তারা বলেন, সরকারি জুট মিল বন্ধ করার কিছুদিন পর সরকার শ্রমিকদের পাওনাদি একসঙ্গে পরিশোধ করেছে, অথচ বছরের পর বছর বেসরকারি জুট মিল মালিকরা তাদের কারখানা বন্ধ ও শ্রমিকের চূড়ান্ত পাওনা পরিশোধ না করেও বহাল তবিয়তে রয়েছে। এ অবস্থায় বন্ধ সব বেসরকারি জুট মিল ও শিরোমনি বিসিক শিল্প এলাকার হুগলী বিস্কুট কোম্পানি চালু এবং শ্রমিকদের চূড়ান্ত পাওনা পরিশোধের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা। এছাড়া শ্রমিকদের নায্য দাবি আদায়ের লক্ষে আগামী শুক্রবার (৪ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৪ টায় খুলনা-যশোর মহাসড়কের শিরোমোনিতে রাজপথ ভুখা মিছিল কর্মসূচি সফল করার জন্য প্রশাসনসহ সবার সহযোগিতা কামনা করেন শ্রমিক নেতারা। পরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্বারী আসহাব উদ্দিন শরবত পান করিয়ে শ্রমিকদের অনশন ভঙ্গ করান।এ সময় তিনি শ্রমিকদের দাবি পূরণে সংশ্লিষ্ট মহলকে উদ্যোগ নেওয়ার জোর দাবি জানান । বেসরকারি পাট, সুতা, বস্ত্রকল শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের উদ্যোগে আয়োজিত এ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সহ- সভাপতি শেখ নিজামউদ্দিন। প্রচার সম্পাদক সাইফুল্লাহ তারেকের পরিচালায় বক্তৃতা করেন সাধারণ সম্পাদক গোলাম রসুল খান, কাবিল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইজ্ঞিল কাজী, জুট স্পিনার্স মিলের শ্রমিক নেতা শাহ মনিরুল ইসলাম, ইকবাল বিশ্বাস, কাগজী ইকরাম হোসেন, আসাদুজ্জামান (আশা), ৩৪ নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. ইকবাল হোসেন, মীর আনছার আলী, আবু তালেব, হাশেম গাজী, মো. আল মামুন গাজী, মেহেদী হাসান, মো. কেসমত আলী, মো. সোলায়মান, খায়রুল আলম, মো. আলাউদ্দিন, সবুর, আলম, আ. রশিদ, হাছান, আতাউর,আবুল কাশেম, আবুল হোসেন, হুগলী বিস্কুট শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি কাজী মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মো. ফরহাদ মোড়ল মো. ইয়াসিন আলী, আমির মুন্সি, আইনউদ্দিন প্রমুখ।

Lab Scan