খুলনায় বিএনপি নেতাসহ দু’জন গুলিবিদ্ধ, কারণ অনুদঘাটিত

0

খুলনা ব্যুরো॥ খুলনায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে নগরীর ৭ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির আহ্বায়ক ও সরকারি বিএল কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রিয়াজ শাহেদ ও স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রফিকুল ইসলাম আহত হওয়ার কারণ পুলিশ বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উদ্ঘাটন করতে পারেনি। তবে, রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক বিষয়সহ একাধিক দিক সামনে রেখে পুলিশ তদন্ত কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
এদিকে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি। অপরদিকে আহত দুজনের মধ্যে বিএনপি নেতা রিয়াজ শাহেদকে বুধবার ভোরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, নগরীর ৭ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির আহ্বায়ক রিয়াজ শাহেদ ও তার ম্যানেজার রফিক আহত হওয়ার কারণ বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উদ্ঘাটন করা সম্ভব হয়নি। তবে বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নেয়া হয়েছে। এ জন্য দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত রিয়াজ শাহেদ ও রফিকের সঙ্গে কারো রাজনৈতিক ও ব্যবসাসহ অন্য কোনো দ্বন্দ্ব আছে কি না সেগুলোসহ একাধিক বিষয় সামনে রেখে তদন্ত কাজ চলছে। এছাড়া আহত দুজন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ব্যাপারে তাদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। তিনি আরো বলেন, ওই ঘটনায় বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। তবে মামলা করার বিয়য়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট এস এম শফিকুল আলম মনা বলেন, গুলিবিদ্ধ দুজনের মধ্যে রিয়াজ শাহেদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবার ভোরে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এছাড়া রফিক খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে শাসক দল আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। শাসকদলের কোনো প্রকার ইন্ধন ছাড়া বিএনপি নেতা রিয়াজ শাহেদ ও রফিককে কেউ গুলি করতে পারে না। দুর্বৃত্তরা গুলি করেছে তাদের হত্যার উদ্দেশেই।
তবে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা বলেন, আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়ার মতো কোনো ন্যক্কারজনক রাজনীতি করে না। গুলির ঘটনা বিএনপির অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক কোন্দলের কারণে ঘটেছে বলে আমরা মনে করি। প্রশাসন সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে এই গুলির ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও দায়ীদের আইনের আওতায় আনবে বলে তিনি দাবি জানান।
গত মঙ্গলবার রাত সোয়া ৯টার দিকে নগরীর দৌলতপুর বিএল কলেজের দ্বিতীয় গেট এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে নগরীর ৭নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির আহ্বায়ক ও সরকারি বিএল কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রিয়াজ শাহেদ ও তার ম্যানেজার রফিক আহত হন। রিয়াজের ডান হাতের বাহুতে একটি ও রফিকের পিঠে তিনটি গুলিবিদ্ধ হয়। আহত অবস্থায় তাদের খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

 

Lab Scan