ক্ষুদে ডাক্তারদের ব্যস্ততম দিন …

0

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা॥ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ওরা। তবে অন্যদের চাইতে ওদের ভূমিকা ভিন্ন। স্কুল ড্রেসের ওপরে সাদা এ্যাপ্রোনে ওরা এক একজন ক্ষুদে ডাক্তার। রীতিমতো ডাক্তারের ভূমিকায় অবতীর্ণ তারা। রোগী বাইরের কেউ নয়। সবাই তাদের সহপাঠী। কারো টেম্পারেচার মাপা হচ্ছে। কারো ওজন নেওয়া হচ্ছে। উচ্চতা মাপার দায়িত্ব পালন করছেন কেউ। চলছে দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষাও।
এ চিত্র নগরীর রূপসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। নিত্য দিনের লেখাপড়ার বাইরে এভাবেই অন্য রকম একটা দিন কাটলো। করোনা মহামারীর ছোবলে ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষাব্যবস্থা আর পিছিয়ে পড়া সিলেবাস নিয়ে মানসিক চাপে শিক্ষার্থীরা। সে সময় এমন একটি জনসেবামূলক দায়িত্ব পালন তাদের ভবিষ্যত জীবন গঠন ও লক্ষ্য নির্ধারণে সহায়ক হবে বলে মনে করছেন উদ্যোক্তারা। ক্ষুদে ডাক্তার কর্তৃক শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ফাইলোরিয়াসিস নির্মুল ও কৃমি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের আওতায় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ। শনিবার সকালে খুলনার মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন। আগামী ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত মহানগরীর ১’শ ৪২টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৫৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রম চলমান থাকবে। ৬৮ হাজার ৬’শ ২ জন শিক্ষার্থীকে এ কর্মসূচির আওতায় আনা হয়েছে। কেসিসি’র কাউন্সিলর এস এম মোজাফফর রশিদী রেজা’র সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কাউন্সিলর মো: মনিরুজ্জামান, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর রেকসনা কালাম লিলি, প্রাথমিক শিক্ষা উপ-পরিচালক মো: মাহবুব ইলাহী, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম সিরাজুদ্দোহা ও সহকারী স্বাস্থ্য পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. ফেরদৌসী। স্বাগত বক্তৃতা করেন কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এ কে এম আব্দুল্লাহ।

Lab Scan