‘ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম’ ঋণে আগ্রহ বাড়ছে

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ করোনায় অর্থনীতিতে সিএমএসই খাতে সৃষ্ট বিরূপ প্রভাব থেকে উত্তরণ এবং ঋণ প্রবাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে জামানতবিহীন ঋণের বিপরীতে ক্রেডিট গ্যারান্টি সুবিধা দেওয়ার সুযোগ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। ছোট উদ্যোক্তাদের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই বিভাগের আওতায় ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম ইউনিটের মাধ্যমে এ সুবিধা দেওয়া হয়। এ নিয়ে সিএমএসই উদ্যোগ খাতে ‘ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম’ শীর্ষক একটি স্কিম চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ স্কিমে অংশগ্রহণকারী ব্যাংক ও নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ক্রেডিট গ্যারন্টি সুবিধা পায়।
বর্তমানে জামানতবিহীন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের ঋণ সুবিধা দেওয়া ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম (সিজিএস) জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ২০২১ সাল শেষে ৩৬২টি আবেদনের বিপরীতে ৩৮ কোটি টাকার ক্রেডিট গ্যারান্টি ইস্যু করা হয়েছে। যা তার আগের বছর (২০২০ সালে) ২৭৪টি আবেদনের বিপরীতে ছিল ২৯ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক বছরের ব্যবধানে আবেদন বেড়েছে ৮৮টি এবং গ্যারান্টি ইস্যুর বিপরীতে ঋণ বিতরণ বেড়েছে ৩৮ শতাংশ।

এদিকে, চলতি বছরের ২০ মার্চ পর্যন্ত ৯০টি আবেদনের বিপরীতে নয় কোটি টাকার ক্রেডিট গ্যারান্টি ইস্যু হয়েছে। স্কিম চালুর শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ৭২৬টি আবেদনের বিপরীতে সর্বমোট ৭৭ কোটি টাকার ক্রেডিট গ্যারান্টি ইস্যু হয়েছে।
সিজিএসে ঋণ বিতরণে ঝুঁকি কম থাকায় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে। ব্যাংক ও নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে এতদিনে জামানত থাকার কারণে এসব উদ্যোক্তাদের ঋণ সুবিধা গ্রহণে বাধা ছিল। তবে এখন জামানতবিহীন ঋণ সুবিধার ফলে ঋণ নিতে আগ্রহ বাড়ছে প্রতিনিয়ত।
খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্থবির অর্থনীতি চাঙ্গা, উৎপাদন, বাণিজ্য, সেবাখাতের প্রাণ সঞ্চারে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম। তবে গ্রাহকদের মধ্যে এ ঋণ সুবিধা প্রসারিত করতে ব্যাংক ও নন ব্যাংকি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরতদের মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে হবে। একই সঙ্গে ক্রেডিট গ্যারান্টি বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রয়োজন তাদের। গ্রাহকদেরও সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। এতে ক্রেডিট গ্যারান্টি ইস্যুর পরিমাণ আগামীতে আরও বাড়বে।

Lab Scan