কোটচাঁদপুরে মাদ্রাসাছাত্র হত্যার দায়ে ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ ॥ ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ভোমরাডাঙ্গা গ্রামের মাদ্রাসাছাত্র মিরাজ হোসেন হত্যা মামলায় দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক গোলাম আজম এ রায় প্রদান করেন।
দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, বাগেরহাট জেলার মোড়লগঞ্জ থানার পুটিখালী গ্রামের মৃত কাসেম আলী শেখের ছেলে আতাহার আলী শেখ ও ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ভোমরাডাঙ্গা গ্রামের আনারুল ইসলামের ছেলে হাবিবুর রহমান। আদালত সূত্রে জানা যায়, জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার ভোমরাডাঙ্গা গ্রামের মোহর আলীর মাদ্রাসা পড়–য়া ছেলে মিরাজ হোসেন (১২) ২০১৫ সালের ১৪ মার্চ গ্রামের মাদ্রাসা মাঠে ধর্মসভা শুনতে যায়। রাতে বাড়ি না ফেরায় অনেক খোঁজাখুঁজির পর ১৬ মার্চ গ্রামের ভুট্টাক্ষেত থেকে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার ওইদিন কোটচাঁদপুর থানায় ৪ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করে। অপহরণের পর মুক্তিপণের দাবিতে তাকে হত্যা করা হয় বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়।
মামলার সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে বিজ্ঞ বিচারক মঙ্গলবার দুপুরে আতাহার ও হাবিবুর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দন্ডিত করেন। মামলার অপর দুই আসামি নাসির সরকার ও ইউসুফ আলীর বিরুদ্ধে দোষ প্রমানিত না হওয়ায় আদালত তাদের বেকসুর খালাস দেন। নিহত মিরাজ হোসেনের পিতা মোহর আলী আদালত চত্বরে সাংবাদিকদের জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের আদেশ তিনি আশা করেছিলেন।

ভাগ