কি কথা ইমরান খান ও ট্রাম্পের মধ্যে!

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ‘সাম বর্ডার’ ইস্যুতে একত্রিত হয়ে কাজ করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মঙ্গলবার এ কথা বলেছেন ট্রাম্প। আগামী মাসে ভারত সফরে আসার কথা রয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। ওই সফরকে সামনে রেখে ট্রাম্প বলেছেন, তারা কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনা করছেন। সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক সামিটের এক ফাঁকে ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের আগে ট্রাম্প মঙ্গলবার কাশ্মীরের প্রসঙ্গ না তুলে বলেন, আমরা ‘সাম বর্ডার’ ইস্যুতে একত্রিতভাবে কাজ করছি। আলোচনা করছি কাশ্মীর নিয়ে এবং পাকিস্তান-ভারতের মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে। যদি আমরা সহায়তা করতে পারি তাহলে অবশ্যই আমরা তা করবো। আমরা এ বিষয়টির ওপর নজর রাখছি।
ফলো করছি অত্যন্ত নিবিড়ভাবে।
এ খবর দিয়ে ভারতের অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া বলেছে, এক্ষেত্রে ‘সাম বর্ডার’ বলতে কি বুঝাতে চেয়েছেন, তা তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার করেন নি ট্রাম্প। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা ইসলামাবাদের ওপর আন্তঃসীমান্ত সন্ত্রাস ও ভারতে হামলা চালাতে পারে এমন সন্ত্রাসীদের মদত দেয়া বন্ধ করার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছে। পক্ষান্তরে সীমান্তে আগ্রাসী নীতি গ্রহণের জন্য ভারতকে দায়ী করে পাকিস্তান। সেখানকার উত্তেজনা প্রশমনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চায় পাকিস্তান। তবে এরই মধ্যে যেসব বিষয় মোকাবিলার জন্য পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে তারা এখনও সেই পরিমাপক নিশ্চিত করতে পারে নি ট্রাম্প প্রশাসন অথবা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে।
ইমরান খান ভারতের সঙ্গে তার দেশের উত্তেজনার সমাধানে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে ট্রাম্পের প্রতি অনুরোধ করেছেন। ২০১৯ সালের জুলাইয়ে হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাত করেন ইমরান খান। সেখানে তিনি বলেন, পাকিস্তানে আমাদের কাছে ভারত একটি বড় ইস্যু। অবশ্যই আমরা সব সময় আশা করি, যেহেতু অন্য কোন দেশ পারে না, তাই এই উত্তেজনা প্রশমনে ভূমিকা রাখুক যুক্তরাষ্ট্র। তবে এখন পর্যন্ত বহুবার এই সমস্যা সমাধানে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত হয়েছে ভারতে। ভারতের জবাব, এসব উত্তেজনা দ্বিপক্ষীয়। এর সমাধানে তৃতীয়পক্ষের হস্তক্ষেপ তারা মানবে না।

ভাগ