কালীগঞ্জে চাঁদাবাজির সময় ৩ ভুয়া সাংবাদিক আটক

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা ॥ কখনো সাংবাদিক কখনো বা মানবাধিকার কর্মী পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন প্রতারণা চালিয়ে আসছিল একটি প্রতারক চক্র। বুধবার দুপুরে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার চাপরাইল বাজারে বিভিন্ন বেকারিতে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ে তারা। নিজেদেরকে কথিত বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড প্রেস সোসাইটির পরিচয় দিয়ে থাকে এই তিন ভুয়া সাংবাদিক। স্থানীয় জনতা তাদের গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেন।
আটককৃতরা হলো মাগুরা জেলার আবালপুর (ইটটুলা বাজারপাড়া) গ্রামের মৃত নইমুদ্দিনের ছেলে উজ্জ্বল মিয়া (৪৮), মাগুরা সদর থানার সাজিয়াড়া (মাঠপাড়া) গ্রামের মৃত ইসমাঈল শেখের ছেলে ইমরান হোসেন (৩২) এবং মালাঙ্গী (মাঝপাড়া) গ্রামের আরজ আলীর ছেলে মফিজুর রহমান (২৫)। এ সময় তাদের কাছ থেকে দামি ক্যামেরা, বিভিন্ন পত্রিকার ভুয়া পরিচয়পত্র, ভিজিটিং কার্ড, চ্যানেল বাংলা টিভির বুম (মাইক্রোফোন), এন্ডোরয়েড মোবাইল ফোন, চাঁদাবাজির টাকা ও তাদের ব্যবহৃত সাদা রংয়ের ঢাকা মেট্রো-গ-৩১-৫২৭৫ প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।
কালীগঞ্জ থানার এস আই দেলোয়ার হোসেন জানান, বুধবার দুপুরে উপজেলার চাপরাইল বাজারে সাদা রংয়ের একটি দামি প্রাইভেটকারে দৈনিক খবর বাংলাদেশ ও প্রেস ইস্টিকার মেরে তারা চাপরাইল বাজারের বিভিন্ন বেকারিতে প্রবেশ করে তারা নিজেদের মানবাধিকার কর্মী ও ক্রাইম রিপোর্টার দাবি করে ওই বেকারির বিএসটিআই ও পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন আছে কিনা তা জানতে চায়। পরে বেকারি মালিকদের কাছে চাঁদা দাবি করে। অন্যথায় তারা তার বেকারির বিরুদ্ধে রিপোর্ট করবে বলে হুমকি দেয়। এ সময় বাজারের জনতার সন্দেহ হলে ৩ জনকেই আটক করে গণপিটুনির পর আমাদের হাতে তুলে দেয়।

ভাগ