করোনা সর্তকতায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাইকিং

শামীম আহসান মল্লিক, মোরেলগঞ্জ বাগেরহাট ॥ নিজে সুস্থ থাকি, অপরকে সুস্থ রাখি, করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকতে আতঙ্ক নয়, সতর্ক থাকুন এমন শ্লোগান দিয়ে মাইকিং করেছেন উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাষ্টার আবুল খায়ের। তিনি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি বাজারে হেটে হেটে হ্যান্ড মাইক দিয়ে মাইকিং করে জনসাধারনসহ বাজার ব্যবসায়ীদের সতর্ক থাকার আহবান জানান। মোরেলগঞ্জ উপজেলার সন্ন্যাসী বাজার, খাউলিয়া বাজার, আমতলী ও চেয়ারম্যান বাজারে মাইকিং এ বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও ফার্মেসীর দোকান খোলা থাকবে তবে একত্রে লোক জড়ো হওয়া যাবে না। অপ্রয়োজনে বাজারে আসা যাবেনা। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার আবুল খায়ের বলেন, আমাদের অঞ্চল এখনও আল্লার রহমতে ভালো আছে। আমরা এ অবস্থা ধরে রাখতে চাই। তাই বাজার ব্যবসায়ী ও জনসাধারনকে সরকারের বেঁধে দেয়া আইন মেনে চলতে আহবান জানানো হয়েছে। বিদেশ ফেরদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থকতে অনুরোধ করা হয়েছে। সরকারের এ নিয়ম মেনে না চললে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সাহায্যে নেয়া হবে। মোরেলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান খাউলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যনের নব উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এ পর্যন্ত আমরা ৪০৯ বাড়িতে লাল পতাকা উত্তোলন করেছি। উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নসহ পৌরসভায় বিদেশ ফেরত বাড়িগুলোতে এ লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে দেওয়া হয়। ওই বাড়ির মানুষগুলোর সর্ম্পকে তাদের কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং প্রতিটি গ্রামের বিদেশ ফেরত মানুষদের হোম কোয়ারেন্টাইনে স্বেচ্ছায় দুই সপ্তাহের জন্য পাঠানোর জন্য মাইকিং করে আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় মেয়র ও চেয়ারম্যানদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে বলে জানান এ কর্মকর্তা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. কামাল হোসেন মুফতি জানিয়েছেন করোনা ভাইরাস সচেতনতায় মাঠ পর্যায়ে কমিউনিটি কিনিকের সিএইস সিপি ফিল্ড ওর্য়াকরা কাজ করছেন। এ পর্যন্ত ৬১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে। এদের মধ্যে ভারত থেকে আসা ৫০জন, বাকি ১০ জন সিংঙ্গাপুর, রোমান, গ্রিস, জার্মানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা কারো মধ্যে এখন পর্যন্ত করোনার লক্ষ পাওয়া যায়নি।

ভাগ