কপিলমুনিতে কপোতাক্ষের নদের ওপর সেতু নির্মাণের কাজ ২৩ বছরেও শেষ হয়নি

0

 

জিএম মিজানুর রহমান, পাইকগাছা (খুলনা)॥ খুলনার পাইকগাছায় কপিলমুনি-জেঠুয়ার কপোতাক্ষ নদের ওপর সেতু নির্মাণ কাজ প্রায় ২৩ বছরেরও শেষ হয়নি।নদের মাঝখানে খাড়া ১৮টি পিলার দু-পাড়ের লাখ লাখ মানুষের ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
পাইকগাছা ও সাতক্ষীরার জেলার তালা উপজেলার জেঠুয়ার সংযোগ স্থলে ২০০০সালে ১২ এপ্রিল সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয়। এন হক এসোসিয়েট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ১ কোটি ৯৩ লাখ ৪২ হাজার ৯১৯টাকা ৫৫ পয়সায় টেন্ডার পেয়ে কাজ শুরু করে।
খুলনা এলজিআরডি অফিস সূত্রে জানা যায়,পরবর্তীতে টাকার অংক বেড়ে দাঁড়ায় ২ কোটি ৩৬ লাখ। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে এ কাজ শুরু হয়। ২০০৩ সালের ১২ এপ্রিল পর্যন্ত আংশিক কাজ করে ১ কোটি ৬৭ লাখ ৭২২ টাকা খুলনার আই এফআইসি ব্যাংক থেকে উত্তোলন করা হয়। এরপর কাজটি নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে বন্ধ হয়ে যায় বলে জানা যায়। স্থানীয়রা জানান, পিলারের কারণে এখানে নৌ চলাচলে যেমন বিঘ্ন ঘটে তেমন দ্রুত নদটি ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এজন্যে এটা খননে ২০১১ সালের নভেম্বর মাসে ২৬১ কোটি ৫৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকা ব্যয়ে খনন কাজ করা হয়। কিন্ত ওই পিলারগুলো থাকার কারণে নদের খনন কাজ তেমন কোন কাজে আসছেনা বলে স্থানীয়রা জানান। পরবর্তীতে সেতুর  কাজ সমাপ্ত করতে ২০০৪ সালে ইসলাম গ্রুপ নামে অপর একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দায়িত্ব পায়। তারা নির্মাণকাজ শুরু করলে নদের স্রোত বাধা পাবে মর্মে পানি উন্নয়ন বোর্ড সাতক্ষীরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিলে সেতুর নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। এ ব্যাপারে শেখ স্থানীয় সেকেন্দার আলী বলেন, সেতু’র দরকার নেই। সর্বসাধারণের ভোগান্তি লাঘব ও নদটি বাঁচাতে পিলার অপসারণ খুবই জরুরি।

 

Lab Scan