এ বাজেট থেকে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করা হবে, খুলনায় রাজম্ব বোর্ড চেয়ারম্যান

খুলনা ব্যুরো॥ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান মো.মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেছেন আসন্ন অর্থ বছরের বাজেট থেকে এবার ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হবে। এবং ভ্যাট সরকারের ঘরে জমা হয় সে জন্য ব্যবসায়ীদের ডিভাইস যুক্ত মেশিন সরবরাহ করা হবে–যার সাথে রাজস্ব বোর্ডের সরাসরি যোগাযোগ থাকবে। ফলে সরকারের ভ্যাট অন্য কারো পকেটে জমা হতে পারবে না। বৃহস্পতিবার খুলনার একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের প্রাক বাজেট আলোচনায় তিনি একথা বলেন।
খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ সভাপতি কাজী আমিনুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মোঃ ফিরোজ শাহ আলম, কানন কুমার রায় ও ড. আব্দুল মান্নান শিকদার, কর-অঞ্চল খুলনার কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়, মোংলা কাস্টম হাউজের কমিশনার সুরেশ চন্দ্র বিশ্বাস, খুলনা ভ্যাটের কমিশনার মোঃ মোস্তবা আলী, কর-আপিল অঞ্চল খুলনার কমিশনার রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, খুলনা ভ্যাট আপিল কমিশনারেটের কমিশনার মোহাম্মদ হোসাইন আহম্মেদ প্রমুখ।
আলোচনায় মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া আরো বলেন, দেশে জিডিবি হার যেহেতু বাড়ছে তাই করের হারও বৃদ্ধি করা হবে। ১০% থেকে বৃদ্ধি করে ১৪%-২০% করা হবে। তিনি উন্নত বিশ্বে ৩৫% পযর্ন্ত কর আদায় করা হয় । তিনি এবারের বাজেটকে কর নির্ধারন জন কল্যাণ বাজেট বলে আখ্যা দেন। তিনি উদাহরণ টেনে বলেন দেশে সরকারি শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য সেবা অন্যদেশের তুলনায় সস্তা। বলেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা নিতে গেলে ভুরি ভুরি টাকা লাগে, কিন্তু সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্টানে তা লাগে না । তাই সরকারি খাতে সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করতে হলে কর প্রদান বৃদ্ধি করতে হবে ।
তিনি বলেন ভ্যাট দেয় জনগণ, কোন ব্যবসায়ী দেয় না। তাই জনগণের টাকা যাতে কোন ব্যবসায়ী বা ভ্যাট কর্মকর্তার পকেটে না যায় তাই ডিভাইসযুক্ত মেশিন প্রতিষ্ঠানে দেয়া হবে। যাবে সরাসরি এনবিআর মনিটরিং করতে পারে। তিনি আরো বলেন আগমীতে উপজেলা পর্যায়ে কর কাষ্যালয় স্থাপন করা হবে,যাতে করের আওতা বৃদ্ধি পায়।
তিনি শিল্প কলকারখানা স্থাপন এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিকে সরকার সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে উল্লেখ করে মোশাররফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশে ভোক্তার সংখ্যা যেমন বাড়ছে উদ্যোক্তাদের সংখ্যাও তেমনি বাড়ছে। বাংলাদেশের জনসংখ্যাকে একসময় সমস্যা হিসেবে বিবেচনা করা হলেও এখন তা সম্পদ। তরুণ উদ্যোক্তাদের সবধরণের সহযোগিতা দেবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড।

ভাগ