উত্থান-পতনে তামার বাজার

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আন্তর্জাতিক বাজারে তামার দামে ধারাবাহিক উত্থান-পতন বজায় রয়েছে। গত এক মাসে ব্যবহারিক ধাতুটির দামে কখনো বড় উল্লম্ফন দেখা গেছে। কখনোবা নিম্নমুখী হয়েছে বাজার পরিস্থিতি। তবে এ সময় লন্ডন মেটাল এক্সচেঞ্জে (এলএমই) তামার সর্বোচ্চ দাম টনপ্রতি ৬ হাজার ২১০ ডলারে উঠেছিল। খবর মেটাল বুলেটিন।
এলএমই প্রাইস ইনডেক্স অনুযায়ী, গত বছরের ১০ ডিসেম্বর এলএমইতে ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামা ৬ হাজার ৫৪ ডলার ৫০ সেন্টে বিক্রি হয়েছিল। এর পর ব্যবহারিক ধাতুটির দাম বাড়তে শুরু করে। মূল্যবৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় ১৭ ডিসেম্বর ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামার দাম ৬ হাজার ১৭৪ ডলারে উন্নীত হয়।
পরদিন ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামার দাম ৬ হাজার ১২৬ ডলারে নেমে আসে। এরপর ফের চাঙ্গা হয়ে ওঠে তামার বাজার পরিস্থিতি। বাড়তে বাড়তে ২৭ ডিসেম্বর ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামার দাম ওঠে ৬ হাজার ২১০ ডলারে। গত এক মাসের মধ্যে এটাই ব্যবহারিক ধাতুটির সর্বোচ্চ দাম। বছরের শেষ দিন ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে ব্যবহারিক ধাতুটির দাম কমে দাঁড়ায় টনপ্রতি ৬ হাজার ১৫৫ ডলার ৫০ সেন্টে।
নতুন বছরের প্রথম কার্যদিবস, ২ জানুয়ারি ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামা বিক্রি হয়েছিল ৬ হাজার ১৬৫ ডলারে। পরদিন ব্যবহারিক ধাতুটির দাম টনপ্রতি ৬ হাজার ৭৫ ডলারে নেমে আসে। ইরান ইস্যুতে মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক উত্তেজনার জের ধরে এরপর ফের চাঙ্গা হয়ে উঠতে শুরু করে তামার দাম।
৬ জানুয়ারি ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামা বিক্রি হয় ৬ হাজার ৯৭ ডলারে। ৮ জানুয়ারি ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামার দাম ৬ হাজার ১৫৩ ডলার ৫০ সেন্টে উঠে যায়। ১০ জানুয়ারি ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন তামা বিক্রি হয় ৬ হাজার ১৫৩ ডলারে। আগামী দিনগুলোয় তামার দামে বিদ্যমান চাঙ্গা ভাব বজায় থাকতে পারে বলে মনে করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।

ভাগ