ইন্টেলের পরিকল্পনায় ভাগ্য খুলবে এএমডির

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ সার্ভার চিপ উৎপাদন ও বাজারজাতের সময় পিছিয়ে ২০২৪-এ নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইন্টেল  বিশ্বে চলমান চিপ সংকট নিরসনে ইন্টেল করপোরেশন যে পরিকল্পনা নিতে যাচ্ছে, তাতে অন্যতম প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠান এএমডির ভাগ্য খুলতে পারে। সম্প্রতি সার্ভার চিপ উৎপাদন ও বাজারজাতের সময় পিছিয়ে ২০২৪-এ নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইন্টেল। বিশ্লেষকদের ধারণা, এতে এএমডি বাজারে আরো শক্ত অবস্থান তৈরি করতে পারবে। খবর সিএনবিসি ও রয়টার্স।
    আগামী চার বছর চিপ উৎপাদন প্রযুক্তিতে বড় বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি জায়ান্টটি। সম্প্রতি বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে আলাপকালে ইন্টেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাট গেলসিঙ্গার এ কথা জানান। এর পর পরই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার ৫ শতাংশ কমে। অন্যদিকে প্রতিযোগী এএমডির শেয়ার ১ শতাংশ কমেছে। এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০২৩-২৬ সালের মধ্যে কম্পিউটার ক্যাটাগরিতে ইন্টেলের আয় নিম্ন থেকে এক অংকের মধ্যম পর্যায়ে উঠে আসবে এবং ডাটা সেন্টার ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির ব্যবসায় উচ্চ প্রবৃদ্ধি হার দেখা যাবে।
    চলতি সপ্তাহে ৫ হাজার কোটি ডলারে জিলিংক্স অধিগ্রহণের মাধ্যমে এএমডির বাজার মূল্য ইন্টেলের কাছাকাছি চলে এসেছে। প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে ইন্টেলের ১৮ হাজার ২০০ কোটি ডলার থেকে ১০০ কোটি ডলার দূরে রয়েছে। তবে এ খাতে ৫৮ হাজার ৫০০ কোটি ডলার বাজারমূল্য নিয়ে শীর্ষে রয়েছে এনভিডিয়া। সার্ভারের দিক থেকে ২০১৮ সালে এএমডির বাজারহিস্যা ৫ শতাংশ থাকলে ও বর্তমানে তা ১৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। ওয়েস্টপার্ক ক্যাপিটালের গবেষক রুবেন রয় জানান, এটি প্রায় ২৫ শতাংশে উন্নীত হবে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, শিগগিরই এএমডির বাজার হিস্যা বর্তমান ১৮-২০ শতাংশ থেকে আরো উপরের দিকে উন্নীত হবে। ইন্টেল যেহেতু উৎপাদন প্রযুক্তির উন্নয়নে কাজ করছে, তাই আমাদের বিশ্বাস এএমডির বাজার আরো বাড়বে।
    ইন্টেলের সার্ভার চিপটি অধিক গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এটি তৈরিতে এক্সট্রিম আল্ট্রাভায়োলেট লিথোগ্রাফি ব্যবহার করা হবে। তাইওয়ান সেমিকন্ডাক্টর ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানিসহ (টিএসএমসি) অন্যদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে ইন্টেলকে এ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় এশিয়ার প্রতিষ্ঠানগুলো চিপ উৎপাদন প্রযুক্তিতে পরিবর্তন আনার মাধ্যমে অনেকটাই এগিয়ে গেছে। টিএসএমসি যেখানে ৫ ন্যানোমিটার নড ব্যবহার করছে, সেখানে ইন্টেল এখনো ১০ ন্যানোমিটারেই সীমাবদ্ধ।
    অন্যদিকে চিপ উৎপাদন প্রযুক্তির উন্নয়ন নিয়ে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল তেমন কোনো আগ্রহ প্রকাশ করেনি। বিশ্লেষকরা এটিকে কঠোর প্রতিযোগিতার মধ্যে বিশ্বাসযোগ্যতার অভাব বলে আখ্যা দিয়েছেন। পাইপার স্যান্ডলারের গবেষক হার্শ কুমার বলেন, ইন্টেল চিপ উৎপাদন প্রযুক্তির উন্নয়নে যে পরিকল্পনা নিয়েছে, তাতে এনভিডিয়া ও এএমডির তেমন কোনো ক্ষতি হবে না।
    গার্টনারের তথ্যানুযায়ী, চিপ উৎপাদনের দিক থেকে একসময়ের শীর্ষ প্রতিষ্ঠান ইন্টেল ২০১৮ সালের পর প্রথমবারের মতো গত বছর স্যামসাংয়ের কাছে শীর্ষস্থান হারায়। একই সময় এএমডি ১৪তম অবস্থান থেকে ১০ম স্থানে উঠে আসে। এর আগে ইন্টেল ইসরায়েলের টাওয়ার সেমিকন্ডাক্টর অধিগ্রহণের চূড়ান্ত পর্যায়ে ছিল বলে প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গিয়েছে। অন্যান্য ব্যবসার জন্য চুক্তিভিত্তিক চিপ উৎপাদন কার্যক্রম এগিয়ে নিতে এ অধিগ্রহণ উদ্যোগ নিয়েছিল ইন্টেল। চিপ উৎপাদন খাতে শীর্ষস্থানে টিএসএমসি। অধিগ্রহণের মাধ্যমে ইন্টেল বাজারে তাদের অবস্থান আরো মজবুত করতে পারবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন প্রযুক্তিবিদরা।

    Lab Scan