ইউক্রেনে প্রথমবার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালো রাশিয়া

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ইউক্রেনে প্রথমবারের মতো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। গতকাল ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলের একটি অস্ত্রাগারে এ হামলা চালানো হয়। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভ বলেন, মস্কো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার মাধ্যমে পশ্চিম ইউক্রেনের একটি ভূগর্ভস্থ অস্ত্রের গুদাম ধ্বংস করে দিয়েছে। গুদামটিতে ইউক্রেনের সেনাদের বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র রাখা ছিল বলেও জানান তিনি। যুদ্ধে এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহারের কথা আগে কখনোই স্বীকার করেনি রাশিয়া। দেশটির একটি রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর এই প্রথম কিনজাল নামের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যবহার করা হলো। রাশিয়া এর আগে এ ধরনের নির্ভুল অস্ত্র যুদ্ধে ব্যবহার করেনি। রাশিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা আরআইএ নভোস্তি জানিয়েছে, রুশ কর্তৃপক্ষ প্রথমবারের মতো ইউক্রেন যুদ্ধে কিনঝাল হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করেছে।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরো জানিয়েছে, কিনঝাল এভিয়েশন মিসাইল ব্যবস্থার মাধ্যমে হাইপারসনিক এরোব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইউক্রেনের একটি বিশাল ভূগর্ভস্থ অস্ত্রের গুদাম ধ্বংস করা হয়ছে। এ অস্ত্রের গুদামে বিপুল সংখ্যক ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমানের মাধ্যমে ব্যবহার উপযোগী মারণাস্ত্র ছিল। এ ভূগর্ভস্থ অস্ত্রের গুদামটি ইউক্রেনের ইভানো-ফ্রাঙ্কিভস্ক অঞ্চলের ডেলিয়াটিন গ্রামে অবস্থিত।
জানা গেছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কিনজাল হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রকে একটি যথাযথ বা প্রকৃত অস্ত্র হিসেবে অভিহিতি করেছেন। যা যেকোনো দেশের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে এড়িয়ে শব্দের চেয়ে পাঁচ গুণ বেশিতে ছুটতে পারে। প্রেসিডেন্ট পুতিনের নির্দেশে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন আক্রমণ করে রুশ বাহিনী। গত ২০ দিনে তাদের হামলায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহর। প্রাণ হারিয়েছেন কয়েকশ বেসামরিক নাগরিক। জাতিসংঘ জানিয়েছে, রুশ আক্রমণের মুখে এরই মধ্যে ৩০ লাখের বেশি মানুষ ইউক্রেন ছেড়ে পালিয়েছেন।
সূত্র : আল-জাজিরা

Lab Scan