ইউক্রেনকে বাঁচাতে যুদ্ধে নামলেন রিয়াল মাদ্রিদকে হারানো কোচ

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ গত সেপ্টেম্বরেই একটা ইতিহাস লিখেছেন ইউরি ভের্নিদুব। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ‍রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে এসেছেন শেরিফ তিরাসপোলের কোচ হিসেবে। ক্ষুরধার মস্তিষ্কে কোচিংয়ের ছক কষে অভূতপূর্ব সাফল্যে ফুটবল দুনিয়ার তার ক্লাব ও নিজের নাম অন্যভাবে লিখে নিয়েছেন ভের্নিদুব। কে জানতো এই নামটি আবারও উচ্চারিত হবে বিশ্বে। আর যে উপলক্ষে তিনি সামনে এলেন, সেটিওবা ভেবেছিলেন কয়জনে! ভের্নিদুবের জন্ম ইউক্রেনে। মাতৃভূমির ওপর শত্রুপক্ষের আক্রমণ ঠেকাতে ইউক্রেনিয়ান সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন মলদোভার ক্লাব ‍শেরিফের কোচ। প্রতিবেশী দেশ রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের রাজনৈতিক টানাপোড়েন চলছিল অনেকদিন থেকেই। সেটি বিস্ফোরিত হয় গত সপ্তাহে। যখন রুশ বাহিনী স্থল, আকাশ ও সমুদ্র পথে সর্বাত্মক আক্রমণ শুরু করে ইউক্রেনের ওপর। এই অবস্থায় দেশকে বাঁচাতে, দেশের মানুষকে বাঁচাতে ফুটবল ছেড়ে যুদ্ধে নামলেন ভের্নিদুব।
গত বছরের সেপ্টেম্বরে চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে অঘটন ঘটিয়েছিল শেরিফ। বার্নাব্যুতেই তারা রিয়ালকে হারিয়ে দেয় ২-১ গোলে। ইতিহাস লেখা এই ক্লাবটির প্রধান কোচ এবার দেশ বাঁচাতে সেনাবাহিনীতে যোগ দিলেন। রাশিয়ার বিরুদ্ধে ‍তার যুদ্ধে নামার গল্প সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রীতিমতো ঝড় তুলেছে। তার ক্লাব শেরিফের খেলোয়াড় গুস্তাভো দুলান্তো টু্ইটার বার্তায় সমর্থন জানিয়েছেন ভের্নিদুবকে। পেরুভিয়ান ডিফেন্ডারের টুইট, ‘ঈশ্বর আমার ইউরিকে রক্ষা করুন। ইউক্রেনের জন্য লড়ছে সে।’ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও গণমাধ্যমে ভের্নিদুবের একটি ছবি ঘোরাঘুরি করছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে ইউক্রেনিয়ান এই ফুটবল কোচ সেনাবাহিনীর পোশাক পরে আছেন। ৫৬ বছর বয়সী এই কোচ ২০২০ সালের ১৮ ডিসেম্বর দায়িত্ব নেন শেরিফের। প্রথম মৌসুমেই তিনি ক্লাবটিকে জেতান মলদোভিয়ান প্রথম বিভাগের শিরোপা। শুধু তা-ই নয়, তার ছোঁয়ায় প্রথমবার চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে খেলার সুযোগ হয় শেরিফের।

Lab Scan