আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় শরণখোলায় সরিষার বাম্পার ফলনের আশা চাষিদের

0

শরণখোলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা ॥ শরণখোলার বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে সরিষা ফুলের সমারোহ। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সরিষার বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছেন চাষিরা।
উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্য মতে,চলতি মৌসুমে শরণখোলায় সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪০০ বিঘা। সেখানে চাষাবাদ হয়েছে ৫০০ বিঘা জমিতে। যা উপজেলার ৪টি ইউনিয়নেই হয়েছে। এর মধ্যে খোন্তাকাটা ইউনিয়নে সব থেকে বেশি চাষাবাদ হয়েছে। ওই ইউনিয়নের পূর্ব খোন্তাকাটা,পশ্চিম খোন্তাকাটা,মঠেরপাড় ও রাজৈর এলাকায় ব্যাপক সরিষার আবাদ হয়েছে। তবে মৌসুমের শুরুতে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গত বছরের তুলনায় ফসল ভালো হবে বলে আশা করছেন কৃষি বিভাগ।
কৃষি বিভাগ বলছেন,উচ্চ ফলনশীল জাতের সরিষা চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা এবং সঠিক পরামর্শের কারণেই শরণখোলায় সরিষার আবাদ বেড়েছে। উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের কৃষক মিজানুর রহমান,নাছির উদ্দিন,টিপু মুন্সি,রানী আক্তারসহ অনেকেই বলেন,কৃষি অফিসের পরামর্শ নিয়ে তারা প্রতিবছর সরিষা চাষ করেন। এবছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সরিষার ফুল অনেক ভাল হয়েছে। বিঘা প্রতি তাদের ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। তবে আশা করছেন প্রতি বিঘায় ৭ থেকে ৮ মণ সরিষা পাবেন।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা দেবব্রত সরকার বলেন,বাজারে সরিষার ব্যাপক চাহিদা ও ভালো দাম থাকায় শরণখোলার কৃষকদের সরিষা চাষে আগ্রহ বাড়ছে। মাঠে বারি সরিষা ১৪,বারি ১৭ ও বিনা ৯ জাতের সরিষা আবাদ হয়েছে। এবছর সরিষা ক্ষেতে কোনো পোকামাকড়ের আক্রমণ নেই বলে সরিষার ফলন হতে পারে ৭৫ মেট্রিক টন। যা গত বছরের তুলনায় ১০ মেট্রিক টন বেশি।

 

Lab Scan