আবরার হত্যা: বিচার কার্যকর দেখতে চান শতবর্ষী দাদা

0

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা॥ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীর হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দেখে যেতে চান তার শতবর্ষী দাদা মো. আব্দুল গফুর বিশ্বাস। বৃহষ্পতিবার (০৭ অক্টোবর) দুপুরে কুষ্টিয়া কুমারখালী উপজেলার রায়ডাঙ্গা গ্রামের স্থানীয় জামে মসজিদে জোহরের নামাজ শেষে তিনি এ ইচ্ছা পোষণ করেন। আবরার ফাহাদের দাদা আব্দুল গফুর বিশ্বাস বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতিসহ সবাই বলেছেন আবরার হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। কিন্তু দুই বছর হয়ে গেলেও এখনো বিচার কাজ শেষ হয়নি। মৃত্যুর আগে আমি আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি কার্যকর দেখে যেতে চাই।’ হত্যাকারীর সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চান আবরার ফাহাদের মা রোকেয়া খাতুন। কান্নাজরিত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘সবাই দেখেছে আমার ছেলে আবরার ফাহাদকে কতো নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। দুই বছর অতিবাহিত হলেও আমার ছেলের হত্যাকারীরা এখনও জীবিত রয়েছে। অতিদ্রুত রায় ঘোষণার পাশাপশি তা কার্যকর দেখতে চাই।’ নিহতের ছোট ভাই আবরার ফায়াজ বলেন, ‘করোনার কারণে বিচার কাজে কিছুটা বিঘ্ন হয়েছে। এতে বিচার কাজ বিলম্ব হওয়ায় অনেকেই এই মামলাটিকে ভিন্নখাতে নেওয়ার সুযোগ খুঁজতে পারে। তাই দ্রুত সকল আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।’
প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের একটি কক্ষে ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী প্রায় ৬ ঘণ্টা নির্যাতন করে আবরার ফাহাদকে হত্যা করে। পরদিন ৭ অক্টোবর সকালে তার লাশ উদ্ধার হলে প্রতিবাদে সারাদেশ বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

Lab Scan