আগামী ঈদে সকলে মিলে আনন্দ করার আশা সাকিবের

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় মসজিদে ঈদের নামাজ জামাতে পড়ার অনুমতি দেয়া হয়ে ঠিক। তবে প্রায় সব জায়গায় জামাত শেষে অসহায় কণ্ঠে ইমাম সাহেব নিজেই মনে করিয়ে দিয়েছেন, কেউ যেন দোয়ার পরে কোলাকুলি না করে।যেকোন ঈদের দিনের আনন্দটা শুরু হয় নামাজ এবং তারপরের কোলাকুলি থেকেই। একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি করে ভাব বিনিময় করেন ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে। কিন্তু এবারের ঈদে নেই সেই সুযোগটাও।
মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে নামাজ শেষে দ্রুত বাড়ির ফেরার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। অপারগ অবস্থায় সবাইকে মানতে হয়েছে এই স্বাস্থ্যবিধি। সবার আশা করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরবর্তী ঈদ সবাই মিলে আনন্দের সঙ্গে উদযাপন করার।
একই আশা বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানেরও। যুক্তরাষ্ট্রে নিজ পরিবারের সঙ্গে আইসোলেটেড অবস্থায় উদযাপন করছেন ঈদ। সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন ঘরে থেকেই ঈদ উদযাপন করার।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের পেজে তিনি লিখেছেন, ‘করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে রক্ষা পেতে এবারের ঈদটা উদযাপন করি বাড়িতে বসে, যাতে করে পরবর্তী ঈদটা সকলে মিলে উদযাপন করতে পারি দারুণ আনন্দে।’

ভাগ