মনিরামপুরের পল্লীতে র‌্যাব সেজে হামলা : মহিলাসহ আহত ১০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরের মনিরামপুর উপজেলার নোয়ালী গ্রামে সন্ত্রাসী হামলায় ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ভেতর সাতজন মহিলা র‌্যাবের মতো কালো পোশাক পরে যশোর শহর থেকে গিয়ে এ হামলা চালানো হয়। আহতরা হচ্ছেন- নোয়ালী গ্যামের হাসেম আলী গাজী (৬০), তার স্ত্রী শাহিদা বেগম (৪০), আব্দুল মজিদ গাজী (৫০), তার স্ত্রী মমতাজ বেগম (৩৫), ইউপি সদস্য আজব আলী (৫০), জুলফিক্কার আলীর স্ত্রী শাহিদা বেগম (৩২), রওশন আলীর স্ত্রী মালতী বেগম (৫০), শওকত আলীর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৪৫), তার কন্যা পারুল (৩০) ও আজহারুল ইসলামের স্ত্রী স্বপ্না বেগম (২৫)।
আহতদের সূত্রে জানা গেছে, শওকত আলীর ঘরের ছাদের পানি সরকারি রাস্তার উপর পড়লে মেম্বার আজব আলী পাইপ কেটে ছোট করে দিতে বলেন। এ নিয়ে আব্দুল্লাহের সাথে মনিরা বেগমের তর্কবিতর্ক হয়। তখন প্রতিবেশী আব্দুল হাইয়ের স্ত্রী মর্জিনা বেগমও তাদের সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত হন। একপর্যায়ে মর্জিনা বেগম মেম্বার আজব আলীকে মারপিট করে। মমতাজ বেগম ও শাহিদা বেগম এর প্রতিবাদ জানান। এতে প্তি হয়ে মর্জিনা বেগম তার দু’ছেলে ইমরুল ও ইমামুলকে জানায়। ইমরুল ও ইমামুল যশোর শহরে থেকে কলেজে পড়ে।
আহতরা জানিয়েছেন, মায়ের কাছে ঘটনা শোনার পর ইমরুল ও ইমামুল র‌্যাবের মতো কালো পোশাক পরে মোটরসাইকেলযোগে গ্রামে যায়। এ সময় তাদের কাছে কাগজ দিয়ে জড়ানো রড ছিল। ওই রড দিয়ে তারা সকলকে ঢালাওভাবে মারতে শুরু করে। রডের আঘাতে মহিলাসহ ১০ জন আহত হন। আহতদের যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা গুরুতর। আহতদের অভিযোগ, ইমরুল ও ইমামুল যশোরে থাকার কারণে আহতদের অনেকেই তাদের চেনেন না। এছাড়া র‌্যাবের মতো কালো পোশাক পরে অতর্কিত হামলা চালানোর কারণে তারা কিছু বুঝে উঠতে পারেনি। এর ভেতর সকলকে বেধড়ক পিটিয়ে তারা তড়িঘড়ি করে মোটরসাইকেলযোগে চলে যায়।

ভাগ