বিমানের জানালা ভেঙে প্রাণে বাঁচলেন যে যাত্রী

রাসুইটা ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের কর্মচারী বসন্ত বহরা সোমবার কাঠমান্ডুতে ইউএস বাংলা বিমান দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া এক যাত্রীদের একজন। বহরা তার ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা নেপালের কাঠমান্ডু পোস্টকে জানাতে গিয়ে বলেন, ‘বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সির ১৬ জন নেপালি নাগরিক ওই বিমানে ছিলেন। আমরা বাংলাদেশে গিয়েছিলাম প্রশিক্ষণ নিতে।’ বহরা বলেন, ঢাকা থেকে তাদের বিমান স্বাভাবিক ভাবেই উড়েছিল। কিন্তু ত্রিভুবন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণের সময় বিমানটি অদ্ভুত আচরণ শুরু করে।
‘হঠাৎ বিমানটি প্রচণ্ডভাবে কাঁপতে শুরু করে এবং একসময় খুব জোরে একটা শব্দ হয়। আমি জানলার কাছে বসেছিলাম তাই জানালা ভেঙ্গে বেরিয়ে আসতে পেরেছি,’ জানান বহরা। তিনি এখন থাপাথালির নর্ভিক হাসপাতালে চিকিতসাধীন আছেন। বহরা বলেন, ‘বিমান থেকে বেরোনোর পর আমার আর কিছু মনে নেই। আমাকে কেউ একজন সিনামাঙ্গাল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে আমার বন্ধুরা আমাকে নর্ভিক হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমার মাথা আর পায়ে আঘাত লেগেছে। কিন্তু সৌভাগ্যক্রমে দুর্ঘটনার পরও বেঁচে গেছি।’

ভাগ