দুই টেস্ট নিষিদ্ধ রাবাদা

ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে দলকে জিতিয়েছেন। নিজে জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। কিন্তু পোর্ট এলিজাবেথ টেস্ট জয়ের নায়ক কাগিসো রাবাদাকে সিরিজেই আর পাচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকা। আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে দুই টেস্টের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন প্রোটিয়া পেসার। লেভেল-টু ধরনের আচরণবিধি ভেঙেছেন রাবাদা। ঘটনাটা অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসের ৫২তম ওভারে। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে আউট করার পর তার গায়ে লাগে রাবাদার কাঁধ।
এই ঘটনা নিয়ে ম্যাচ রেফারি জেফ ক্রো বলেছেন, ‘রাবাদা ও স্মিথের মধ্যে স্পর্শ ছিল। আমি মনে করি, রাবাদার স্পর্শ ছিল অসঙ্গত ও ইচ্ছাকৃত। এটা সে এড়াতে পারত। দুর্ঘটনাবশত এমনটা ঘটেছে, এই দাবির সমর্থনে আমি কোনো প্রমাণ দেখিনি।’ আর এই ঘটনায় রাবাদার ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি তার নামের পাশে যোগ হয়েছে ৩টি ডিমেরিট পয়েন্ট। ২৪ মাস সময়ের মধ্যে তার ডিমেরিট পয়েন্ট দাঁড়িয়েছে ৮টি। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, দুই টেস্ট নিষিদ্ধ থাকবেন রাবাদা। অর্থাৎ কেপটাউন ও জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার পরের দুই টেস্টে তিনি খেলতে পারবেন না।
সোমবার শেষ হওয়া দ্বিতীয় টেস্টে আরো একটি অভিযোগে শাস্তি পেয়েছেন রাবাদা। দ্বিতীয় ইনিংসে ডেভিড ওয়ার্নারকে আউট করার পর বেরিয়ে যাওয়ার পথ দেখিয়ে দেন প্রোটিয়া পেসার। এই ঘটনায় তার ম্যাচ ফির আরো ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে, পেয়েছেন একটি ডিমেরিট পয়েন্টও। রাবাদার নামের পাশে এখন ৯টি ডিমেরিট পয়েন্ট। আগামী ১২ মাসের মধ্যে মোট ডিমেরিট পয়েন্ট ১২ হলে অন্তত তিন টেস্টের জন্য নিষিদ্ধ হবেন ২২ বছর বয়সি এই পেসার।
রাবাদার যত ডিমেরিট পয়েন্ট
ফেব্রুয়ারি, ২০১৭- ৩টি ডিমেরিট পয়েন্ট, প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা
জুলাই, ২০১৭- ১টি ডিমেরিট পয়েন্ট, প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড (৪ ডিমেরিট পয়েন্ট/এক টেস্ট নিষিদ্ধ)
ফেব্রুয়ারি, ২০১৮- ১টি ডিমেরিট পয়েন্ট, প্রতিপক্ষ ভারত
মার্চ, ২০১৮- ৩টি ডিমেরিট পয়েন্ট, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া (৮ ডিমেরিট পয়েন্ট/দুই টেস্ট নিষিদ্ধ)
মার্চ, ২০১৮- ১টি ডিমেরিট পয়েন্ট, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া

ভাগ