ঝিকরগাছায় বয়োবৃদ্ধ ছবিরন নেছার পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

ঝিকরগাছা (যশোর) সংবাদদাতা॥ নির্যাতনের মুখে বসতঘর থেকে বিতাড়িত করার মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করায় ঝিকরগাছায় বিধবা পুত্রবধূর বিরুদ্ধে বয়োবৃদ্ধ শাশুড়ি ছবিরন নেছা (৭০) পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। বুধবার দুপুরে ঝিকরগাছা প্রেস কাবে তিনি পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি দাবি করেন, মঙ্গলবার ঝিকরগাছা প্রেস কাবে তার মরহুম ছেলে আব্দুস সামাদের স্ত্রী রহিমা খাতুন (বর্তমানে হাজিরালী সাইফুল ইসলামের স্ত্রী) তাকে ও তার ছেলে-মেয়েদের জড়িয়ে যে বক্তব্য দিয়েছে তা সত্য নয়। তিনি দাবি করেন, আমার ছেলে ১৯৯০ সালে বিবাহ করার পর থেকে শ্বশুরবাড়ি মিশ্রীদেয়াড়া গ্রামে ঘরজামাই থাকত। ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর তার একমাত্র কন্যা সন্তান আছিয়া জামান রোজ (৫) কে রেখে মারা যায়। বর্তমানে রোজের বয়স ৯ বছর। এর মাত্র তিন বছরের মাথায় ২০১৫ সালে ২৭ ফেব্র“য়ারি রহিমা খাতুন হাজিরালী গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে সাইফুল ইসলামের সাথে দ্বিতীয় বিবাহ করে এবং স্বামীর সাথে ঘরসংসার করে। আমার ছেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলেও সংবাদ সম্মেলনে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে বলে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়েছে।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি দাবি করেন, গত ৮ মাস পূর্বে আমার পুতনি আছিয়া জামান রোজকে নিয়ে আমাদের বাড়িতে থাকতে চাইলে আমি আমার অন্য তিন ছেলে নাজিম উদ্দিন, জামাল উদ্দিন ও সরোয়ার হোসেন মিলে টিনসেডের ঘর করে দিয়েছিলাম। কিন্তু প্রতিবেশিদের কুপরামর্শে ওই ঘরে না থেকে আমার সেজো ছেলে জামাল উদ্দিনের বাড়ির প্রাচীর ভেঙে আমাদের বাড়িতে ঢোকার রাস্তার উপর একটি টিনসেডের ঘর করে বসবাস করছে। ফলে আমার অন্য ছেলেদের যাতায়াতে বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে। গত ৫ ফেব্র“য়ারি রাতে আমার ছোট ছেলে সরোয়ার হোসেন দোকান থেকে বাড়ি ফেরার সময় বাড়ির গেটের মুখে প্রতিবেশিদের উস্কানিতে বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হয়। জানতে পেরে আমার বড় ছেলে নাজিম উদ্দিনের স্ত্রী রহিমা খাতুন সেখানে এগিয়ে গেলে তার ওপর হামলা চালায়। হামলায় তার একটি হাত ভেঙে যায়। এ ঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে তার তিন ছেলেসহ পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে বলে সাংবাদিক সম্মেলনে বৃদ্ধ ছবিরন নেছা দাবি করেন। সংবাদ সম্মেলনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বৃদ্ধার মৃত ছেলের কন্যা আছিয়া জামান রোজ, নাজিম উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, সরোয়ার হোসেন, পুত্রবধূ রহিমা বেগম, রহিমা খাতুন, সেলিমা খাতুন, নাতিছেলে জ্যোতি প্রমুখ।

ভাগ